kolkata news
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধি :  মুকুলের অঙ্গুলি হেলনেই শেষের শুরু বিজেপিতে! তাঁর ইঙ্গিতেই বিজেপির ক্লাসে গরহাজির ছিলেন ৬ বিধায়ক! অ চলছেন, তা জানার চেষ্টা করছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

ads

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে ২৯২টি আসনেন্তত মুকুল ঘনিষ্ঠ সূত্রে এমন খবরই মিলেছে। যদিও ঠিক কী কারণে ওই ছয় বিধায়ক দলীয় কর্মসূচি এড়িয়ের মধ্যে ৭৭টিতে জয়ী হয় বিজেপি। একটি কেন্দ্রে জয়ী হয় আইএসএফ। বাকিগুলি যায় ঘাসফুল আঁকা ঝুলিতে। বিজেপির এই ৭৭ জনের মধ্যে বিধায়ক পদে ইস্তফা দিয়েছেন দুই সাংসদ। বাকি ৭৫ জনের মধ্যে দলবদলু মুকুল রায় ফিরে গিয়েছেন তৃণমূলে। খাতায় কলমে এখন বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা ৭৪।

দলের নবাগত বিধায়কদের বিধানসভার আদবকায়দা শেখাতে ওয়ার্কশপের আয়োজন করেছিল বিজেপি। হেস্টিংসে দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত ওই ওয়ার্কশপে হাজির থাকার কথা ছিল ৫০ জনের। বাকিদের ভার্চুয়ালি যোগ দেওয়ার কথা ছিল। সবাই যোগ দিলেও, অনুপস্থিত ছিলেন ছয় বিধায়ক।এঁরা হলেন দার্জিলিংয়ের বিধায়ক নীরজ জিম্বা, বিষ্ণুপুরের তন্ময় ঘোষ, পুরুলিয়ার সুদীপ মুখোপাধ্যায়, বাগদার বিশ্বজিৎ দাস, কুলটির অজয়কুমার পোদ্দার এবং ভাটপাড়ার অর্জুন-পুত্র পবন সিং। এর পরেই টনক নড়ে বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের। তাঁরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন বিষ্ণুপুরের বিধায়ক তন্ময় ঘোষের বাবা অসুস্থ। তাই তিনি উপস্থিত হতে পারেননি। তবে বাকিরা কেন হাজির হননি, সে ব্যাপারে খোঁজখবর নিচ্ছেন বিজেপি নেতৃত্ব। বাগদার বিধায়কের সঙ্গে মুকুল রায়ের তো বটেই, তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গেও সুসম্পর্ক রয়েছে। তাই বিজেপির চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এই পাঁচজনের অনুপস্থিতি। ঘটনার পেছনে মুকুলের হাতযশ রয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখছেন বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here