Home Featured ‘সমুদ্র কতো বদলে গেছে, আগের মতো মাছ ওঠে না’, আক্ষেপ জনার্দনের

‘সমুদ্র কতো বদলে গেছে, আগের মতো মাছ ওঠে না’, আক্ষেপ জনার্দনের

0
‘সমুদ্র কতো বদলে গেছে, আগের মতো মাছ ওঠে না’, আক্ষেপ জনার্দনের
Parul

মহানগর ডেস্ক: আগের মতো আর ভাললাগেনা সমুদ্রে যেতে। দিনের দিন কেমন যেন অচেনা হয়ে যাচ্ছে। জালে মাছ ওঠে না তেমন। নৌকা নিয়ে বেরোতেও আর মন চায় না। ঝড়ের পর ভেঙে গিয়েছে একটি নৌকা। বাকি রয়েছে আর একটি মাত্র। ‘কীভাবে চালাবো সংসার!’

মুম্বইয়ের উপর দিয়ে বয়ে গিয়েছে ঘূর্ণিঝড় তাউকতে। জ্ঞানত এ রকম দুর্যোগ আগে দেখেননি মাঝিমাল্লারা। ঝড়ের এতই দাপটে মাঝখান থেকে দু’টুকরো হয়ে গিয়েছে নওগাঁ। সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়েছে বটে, তবে তার পরিমাণ ‘হাস্যকর’! নৌকা সারাতে যেখানে খরচ হতে পারে লাখখানেক টাকা, সরকারের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে হাজার পঁচিশ। 

মুম্বইয়ের জনার্দন কোলির দু’টি নৌকা। যার মধ্যে একটি কে আর ফিরে পাওয়ার কোনও আশা দেখছেন না। নৌকাটির অবস্থা এতই বেহাল যে সারাতে গেলে খরচ হয়ে যাবে অনেকটা টাকা। চলনসই অবস্থায় আর একটি মাত্র। সেটা নিয়েই পাড়ি দিতে হবে আরব সাগরে। সমুদ্রের দিকে তাকিয়ে স্মৃতিমেদুর হয়ে যাচ্ছিলেন জনার্দন। একসময় কতইনা মাছ উঠত জালে!

এক সময় ভালো দামে বাজারে বিক্রি করেছে মাছ। ‘এখন আর সেসব দিন কোথায়? জালিয়ার মাছ উঠে না আগের মতো। মাঝে মাঝে মনে হয় সমুদ্রে যেন আর মাছ নেই’। গত বছরও এরকম করেই কেটেছিল তাঁর। মাস প্রতি মাত্র ১০ হাজার টাকা উপার্জন করতে পেরেছিলেন জনার্দন। এবারেও আশা ছেড়ে দিয়েছেন কার্যত। যেতে হয় তাই যাবেন। সমুদ্রে যাওয়া তাঁদের অভ্যাস।

সমুদ্রের মাছের সংখ্যা কমছে জনার্দন না বুঝতে পেরেছেন তাদের রোজকার জীবিকার মাধ্যমে। বিজ্ঞানীরা সেটাই কাগজে-কলমে দেখাচ্ছেন পরিসংখ্যান দিয়ে। সেন্ট্রাল মেরিন ফিশারিজ রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ২০১৭-১৮ বর্ষ থেকে উল্লেখযোগ্যভাবে কমেছে মাছ ধরার হার। ভারতব্যাপী মাছ ধরার পরিমাণ কমেছে ৯ শতাংশ। এই সময়কালের মহারাষ্ট্রে জালে মাছ পড়ার হার কমেছে ২২ শতাংশের বেশি। গত ৪৫ বছরে রিকোয়ার্ড ঘাটতি ধরা পড়েছিল মাছ জালে পড়ার ক্ষেত্রে। অপরিকল্পিতভাবে শহরায়ন, সমুদ্রের স্বাভাবিক জীবন ব্যাহত, সর্বপরি সাগরের তাপমাত্রা বৃদ্ধির ফল পেতে শুরু করেছেন জনার্দনের মতো মৎসজীবীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here