মহানগর ওয়েবডেস্ক : সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু নিয়ে বিহার পুলিশ ও মুম্বই পুলিশের টানাপোড়েনের মাঝে এবার বিস্ফোরক বক্তব্য রাখলেন বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের মেয়র কিশোরী পেডনেকর।

গতকাল তিনি জানিয়েছেন, ”মুম্বই পুলিসের অনুমতি নিয়েই সিবিআই-কে তদন্ত শুরু করতে হবে, নচেৎ সিবিআই আধিকারিকদেরও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হবে। এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ রয়েছে। তাই তাঁদের মুম্বই পুলিসের অনুমতি নিতেই হবে। আর তা নাহলে আইসোলেশন বাধ্যতামূলক।”

এরপরেই মুম্বই পুলিশ ও পুরসভার নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সুশান্তের অনুরাগীরা। এর আগেও বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন মুম্বইতে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনায় তদন্তে যাওয়া এক উচ্চপদস্থ বিহার পুলিশের আধিকারিককে জোর করে কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছিলেন। তারপরেই শুরু হয় বিতর্ক। যার জেরে মুম্বই পুলিশের দিকে আঙুল তুলে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী জানান, তদন্ত আটকাতে জোর করেই বিহারের ওই আইপিএস অফিসারকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

ওই অফিসারকে শর্ত সাপেক্ষে কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। বিহারের আইপি এস অফিসার বিনয় তিওয়ারিকে শর্ত দেওয়া হয়, শুক্রবারই বিহারে ফিরে যেতে হবে তবে কোয়ারেন্টাইন থেকে ছাড়া হবে। এইভাবে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে বিহার পুলিশ ও মুম্বই পুলিশের দ্বন্দ্বের মাঝে মেয়রের বয়ান ক্ষোভ জমিয়েছে সুশান্ত অনুরাগীদের মনে।

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here