মহানগর ওয়েবডেস্ক: ‘জয় শ্রীরাম’ না বললে অত্যাচারের শিকার হতেই হবে, এটাই যেন নয়া নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে মোদী ২.০ সরকারের আমলে। দিনের পর দিন, বিভিন্ন রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় এই ‘জয় শ্রীরাম’-এর বলি হতে হচ্ছে অনেক মানুষকে, যাদের মধ্যে মূলত সংখ্যালঘু মানুষই রয়েছেন বলে অভিযোগ উঠছে। বেশকিছুদিন আগে ঘটে যাওয়া ঝাড়খণ্ডের একটি ঘটনা বিতর্ক আরও বাড়িয়েছিল। শহর কলকাতাতেও এই স্লোগান না দেওয়ায় মারধরের শিকার হতে হয়েছে মুসলিম যুবককে। তবে যোগীরাজ্য যেন সেরা ‘ফর্মে’ই যাচ্ছে। এবার ‘জয় শ্রীরাম’ না বলায় এক মুসলিম কিশোরকে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা হল!

সূত্রের খবর, উত্তরপ্রদেশের চাণ্ডৌলিতে বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকে ওই কিশোর৷ অভিযোগ, ব্যক্তিগত কাজে দুধারি ব্রিজের ওপর দিয়ে যাওয়া সময় তাকে আচমকাই চারজন তাকে ঘিরে ধরে। টানটে টানতে অন্য একটি জায়গায় নিয়ে গিয়ে তার হাত-পা বেঁধে দিয়ে ‘জয় শ্রীরাম’ বলতে বাধ্য করা হয়। রাজি না হওয়ায় অপহরণকারীদের দলে থাকা এক যুবক তার গায়ে কেরোসিন তেল ঢেলে দিয়ে গায়ে জ্বলন্ত দেশলাই কাঠি ছুঁড়ে দেয়! মূহুর্তের মধ্যে পুড়তে থাকা ওই কিশোরকে ফেলে রেখেই চম্পট দেয় তারা।

এই মর্মান্তিক ঘটনার কথা বর্ণনা করতে গিয়ে কিশোর জানিয়েছে, আগুনে পুড়তে থাকা অবস্থায় দেখেও কেউ তার সাহায্যে এগিয়ে আসেনি। পরে অতি কষ্টে বাড়ি পৌঁছয় সে, পরবর্তী সময় বাড়ির লোকই তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, কিশোরের শরীরের প্রায় ৫০% ইতিমধ্যেই পুড়ে গিয়েছে! তাকে বাঁচানোটাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here