kolkata bengali news

ডেস্ক: বিজেপির টুপি পরতে অস্বীকার করায় চরম হেনস্থার সম্মুখী হতে হল এক মুসলিম ছাত্রীকে। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মিরাটে।

গত ৩ এপ্রিল ওই কলেজ ছাত্রীটি টুইটারে সরব হন। তাঁর অভিযোগ, আগ্রায় কলেজ ট্যুরে যাওয়ার সময় তাঁকে চরম হেনস্থা করেন তাঁরই কয়েকজন সহপাঠি। প্রায় ৫৫ জন পড়ুয়াদের মধ্যে সে একলাই মুসলিম। রাস্তায় ৪ মদ্যপ সহপাঠি তাঁকে বিজেপির টুপি পরতে বলে। কিন্তু সে পরতে অস্বীকার করায় তাঁর সহপাঠীরা চরম হেনস্থা করে। সেইসময়ে ঘটনাস্থলে কলেজের অধ্যাপকরাও ছিলেন, কিন্তু তাঁরা চুপ কর দাঁড়িয়ে ছিলেন। এই ঘটনায় যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়ায়।

 

সোশ্যাল মিডিয়ায় এই খবর ছড়িয়ে পড়ার পরেই অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছিল। তাঁদের সাসপেন্ডও করা হয়। এই ঘটনার সপ্তাহখানেক যাওয়ার পরেই ওই মুসলিম ছাত্রীটিকে সাসপেন্ড করে দেওয়া হয় কলেজ থেকে। কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, এই ঘটনার তদন্তের স্বার্থে ছাত্রীটিকে বহুবার ডাকা হয়, কিন্তু সে নাকি আসেনি। ফলে তদন্তে অসহযোগিতা করায় তাঁকে কলেজ থেকে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। উল্লেখ্য, অভিযুক্ত চারজন পড়ুয়ারা বজরং দলের সদস্য। ফলে স্বাভাবিকভাবেই তাঁরা খুশি বলে দাবি বিশিষ্ট মহলের। তবে বজরং দলের দাবি, ওই মুসলিম ছাত্রীটি সম্পূর্ণ মিথ্যে কথা বলেছে। এদিকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সরব হয়েছে বিরোধীরা। তাঁদের অভিযোগ, গেরুয়া শাসনে রাজ্যে চরম অনাচার চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here