kolkata news
Highlights

  • বেলুড়ে একই দড়িতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হল এক তরুণ দম্পতির
  • স্বামীর দেহ ঝুলছিল সিলিংয়ে, স্ত্রীর দেহ গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় পড়েছিল ঘরের মেঝেতে
  • বেলুড়ের আশুতোষ মুখার্জি রোডের তিনতলা বাড়ির দোতলার একটি ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকতেন নরোত্তম কুনওয়ার সিং ও তার স্ত্রী সন্ধ্যা কুমারী সিং


নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া:
মঙ্গলবার হোলির দিন সকালে বেলুড়ে একই দড়িতে গলায় ফাঁস লাগিয়ে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হল এক তরুণ দম্পতির। স্বামীর দেহ ঝুলছিল সিলিংয়ে। স্ত্রীর দেহ গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় পড়েছিল ঘরের মেঝেতে। ওই দম্পতির নাম নরোত্তম কুনওয়ার সিং (৩০) ও তার স্ত্রী সন্ধ্যা কুমারী সিং (২৮)। বেলুড়ের আশুতোষ মুখার্জি রোডের তিনতলা বাড়ির দোতলার একটি ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকতেন নরোত্তম কুনওয়ার সিং ও তার স্ত্রী সন্ধ্যা কুমারী সিং।

জানা গিয়েছে, এদিন সকাল দশটা নাগাদ হঠাৎ নরোত্তমের বাবা দেশের বাড়ি থেকে বাড়িওয়ালাকে ফোন করে তার ছেলের সম্পর্কে জানতে চান এবং তাঁকে একবার ঘরে গিয়ে ছেলে কেমন আছে, দেখতে অনুরোধ করেন। একথা শোনার পর বাড়িওয়ালা দৌড়ে আসেন। এসে দেখেন দরজা ভিতর থেকে বন্ধ। দীর্ঘক্ষণ ডাকাডাকির পরেও কেউ সাড়া দিচ্ছেন না। তা দেখে সন্দেহ হওয়ায় বাড়িওয়ালা ঘরের পিছন দিকে উঠে এসে দেখেন নরোত্তম গলায় দড়ি দিয়ে ঝুলছেন এবং মাটিতে মৃত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন স্ত্রী সন্ধ্যা।

এরপর বেলুড় থানায় খবর দেওয়া হয়। পুলিশ এসে দরজা ভেঙে উদ্ধার করে দেহদুটি। প্রাথমিক ভাবে মনে হচ্ছে যে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কোনও অশান্তির কারণেই এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তবে বাড়িওয়ালা বা অন্যান্যরা স্বামী-স্ত্রীর গণ্ডগোল কিছু শোনেননি বলেই দাবি করছেন। সমস্ত ঘটনা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। জানা গেছে, মহিলা অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। মৃত্যুর কারণ এখনও স্পষ্ট নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here