kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, হুগলি: এক তরুণীর অস্বাভাবিক মৃত্যুর জেরে চাঞ্চল‍্য ছড়াল হুগলির শ্রীরামপুরের নিউ মহেশ এলাকায়। মৃতের নাম ফুলা কুমারি (১৮) । ঘটনার জেরে তরুণীর বাবা ও দাদাকে আটক করেছে পুলিশ। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে,  কিছুদিন আগে এই এলাকায় পরিবারটি নতুন বাড়ি করে বসবাস শুরু করে। পরিবারে বাবা, দাদা ও বউদির সঙ্গে বাস করতেন ওই তরুণী। পরিবারের সদস‍্যরা প্রতিবেশী কারও সঙ্গে সেভাবে বিশেষ কথাবার্তা বলতেন না।

স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, গতকাল রাতে এক প্রতিবেশীর সঙ্গে গল্প করার কারণে মেয়েকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায় তার বাবা। তারপর বাড়ির ভেতরে খুব চিৎকার-চেঁচামেচি হয়। মেয়েটিকে তার বাবা ও দাদারা মিলে মারধর করে বলে প্রতিবেশীদের অভিযোগ। তারপর সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়েন মেয়েটি। স্থানীয়রা খবর মেয়ে মেয়েটির বাড়ির সামনে জড়ো হন। তাকে শ্রীরামপুর ওয়ালশ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত বলে ঘোষণা করেন। একজন তরতাজা মেয়ে কীভাবে বাড়ির ভেতর মারা গেলেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে প্রতিবেশীরা।

তবে কীভাবে মেয়েটির মৃত্যু হয়েছে, তা পরিষ্কার না হলেও পুলিশ এই ঘটনায় মেয়েটির বাবা ও দাদাকে আটক করেছেl  পরিবারের সদস্যদের অত‍্যাচারে মেয়েটি মারা গিয়েছেন, নাকি শাসন করার জন‍্য তরুণী আত্মহত‍্যা করেছেন, না অন‍্য কোনও কারণ আছে তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। স্থানীয় বাসিন্দারা এই ঘটনায় দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দাবিতে সরব হয়েছেন।

অন‍্যদিকে, এই জেলার কোন্নগরের নবগ্ৰাম এলাকায় ঘরের ভেতর থেকে এক স্কুলছাত্রীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয়। শ্রেয়সী দত্ত নামে ওই ছাত্রী ডানকুনির একটি বেসরকারি স্কুলে অষ্ঠম শ্রেণীতে পাঠরত ছিল। পুলিশ এসে মেয়েটিকে উত্তরপাড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। তবে কী কারণে মেয়েটি আত্মহত্যা করল, তা পরিষ্কার নয় পরিবারের কাছে। পরিবারের দাবি, মেয়ের সঙ্গে তাদের কোনও বিষয়ে মনোমালিন‍্য হয়নি। কাল বিকেলেও বাবার সঙ্গে বাইরে ঘুরে এসেছে। তারপর  এই ঘটনায় স্তম্ভিত গোটা পরিবার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here