ডেস্ক: কেন্দ্রে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর আর কিছু হোক না হোক, পৌরাণিক চরিত্রগুলিকে নিয়ে কাটা ছেঁড়া প্রচুর হয়েছে। সিংহভাগ ক্ষেত্রেই এই চরিত্রগুলিকে টেনে এনে বিতর্কিত বয়ান দিয়ে শিরোনামে উঠে আসেন বিজেপি নেতারা। তা সে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবই হন, বা যোগী রাজ্যের উপ মুখ্যমন্ত্রী দীনেশ শর্মা। সকলেই প্রায় ‘এক গোয়ালের গরু’। এবার পৌরাণিক চরিত্র ‘নারদ’কে প্রথম সাংবাদিক বলে বিতর্কে জড়ালেন বিজেপিরই পিতৃ সংগঠন আরএসএসের এক কর্মী নরেন্দ্র জৈন।

সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যম পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে নরেন্দ্র বলেন, ”ব্রহ্মাণ্ডের প্রথম সাংবাদিক ছিলেন নারদ। এই নিয়ে কোনও দ্বিমত থাকতেই পারেনা। এটা বিশ্বাসের ব্যাপার। এই ইস্যু নিয়ে তর্ক করা অর্থহীন।’ নরেন্দ্রর সুরে সুর মিলিয়ে আরেক সংঘের নেতা আবার বলেন, ”যোগাযোগ স্থাপনের বিষয়ে নারদ ছিলেন মাস্টার। কয়েক যুগ আগে থেকে সাংবাদিকতার সকল পন্থা অনুসরণ করতেন।”

প্রসঙ্গত, ৪৮ ঘণ্টা আগেই সীতাকে টেস্ট টিউব বেবি এবং নারদকে গুগল বলে বিতর্কের সূচনা করেছিলেন উত্তর প্রদেশের উপ মুখ্যমন্ত্রী দীনেশ শর্মা। সেই বিতর্কের রেশ এখনও কাটেনি। তার আগেই ধেয়ে এল পৌরাণিক চরিত্রদের নিয়ে আরও দুই বোমা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here