yogi
যোগী আদিত্যনাথ
Parul

মহানগর ডেস্ক: যোগী আদিত্যনাথের প্রশংসায় পঞ্চমুখ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ৷ যোগীর প্রশংসা করে দু’জনেই করেছেন টুইট। উত্তর প্রদেশে ব্লক পঞ্চায়েত প্রধান নির্বাচনে ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে বিজেপি। সামনের বছর নির্বাচনের আগে যা মনোবল বাড়াচ্ছে শাসক দলের।

ads

শনিবার প্রকাশিত হয়েছে নির্বাচনের ফল। ৪৭৬ টি ব্লকের ব্লক পঞ্চায়েতের চেয়ারম্যান নির্বাচনে ৩৪৯ টি ব্লকেই ছিল না কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী। যার মধ্যে ৩৩৪ টি ব্লকে অনায়াসে জয়লাভ করেছে গেরুয়া শিবির। অতিমারির আবহে বহু অভিযোগের মধ্যেও এমন একচেটিয়া জয়ের পর তুঙ্গে দলের আত্মবিশ্বাস।

মোদি টুইট করে বলেছেন, ‘উত্তর প্রদেশের ব্লক প্রমুখ নির্বাচনে দুর্দান্তভাবে জয় লাভ করেছে বিজেপি। এই জয়ের অন্যতম প্রধান কারিগর হলেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। তাঁর নীতির কারণেই এই জয়লাভ সম্ভব হয়েছে। সমস্ত দলীয় কর্মীরা এই জয়ের জন্য প্রশংসার ভাগীদার।’ শাহের টুইট, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দেখানো পথে যোগী সরকারের জনকল্যাণ নীতিগুলির উপর সাধারণ মানুষের আস্থাই এই জয়ের কারণ। অনেক অভিনন্দন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।’

উত্তর প্রদেশের নির্বাচনের আগে বাকি বেশ কয়েক মাস। তার আগে থেকেই গেরুয়া শিবির সহ রাজ্যের অন্যান্য দলগুলো বাধতে শুরু করেছে কোমড়। কিছুদিন আগে জেলা পঞ্চায়েত নির্বাচনে ও সহজে জয় পেয়েছে বিজেপি। অন্যতম প্রধান বিরোধীদলের যাদবের সমাজবাদী পার্টি দাঁত ফোটাতে পারেনি কোনওভাবে। সব মিলিয়ে ২০২২ সালের আগে উত্তর প্রদেশ রাজ্য বিজেপির অন্দরে এখন খুশির হাওয়া।

অথচ মাসখানেক আগেই ছবিটা ছিল কিছুটা অন্যরকম। আদিত্যনাথ এর উপর কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব কতটা ভরসা রাখতে পারবে সে ব্যাপারে দেখা দিয়েছিল সংশয়। উত্তর প্রদেশ রাজ্য নেতৃত্বে যোগ করা হয়েছিল মোদি ঘনিষ্ঠ এক ব্যক্তি। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ মনে করেছিলেন যোগীর উপর আস্থা রাখতে না পেরে গেরুয়া নেতৃত্বের এই সিদ্ধান্ত। অতিমারি আবহে সংবাদ শিরোনামে প্রায়শই জায়গা করে নিয়েছিল উত্তর প্রদেশ। গঙ্গার মৃতদেহ ভেসে যাওয়ার ঘটনা এখনো মনে রয়েছে সকলের। প্রবল সমালোচনার সামনে পড়তে হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকে। কিন্তু স্থানীয় নির্বাচনের ফলাফল দেখে আপাতত স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে পারবেন বিজেপি নেতারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here