নজরে একাধিক যৌথ প্রকল্প, হবে গুরুত্বপূর্ণ চুক্তিও! দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মোদী-হাসিনা

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে এবারের মতো সাক্ষাৎ না করেই নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিনের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে একাধিক যৌথ প্রকল্পের উদ্বোধন সহ বেশ কয়েকটি স্বাক্ষর করার কথা রয়েছে দু’দেশের মধ্যে। সকাল ১০টা থেকে নয়াদিল্লিতে এই বৈঠক শুরু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তিস্তা জলবণ্টন ও এনআরসির মতো একাধিক ইস্যু এই বৈঠকে স্থান পাবে বলে জানা গিয়েছে।

বৈঠক প্রসঙ্গে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার জানান, ‘পরিবহণ, সংযোগ, ক্যাপাসিটি বিল্ডিং ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রে ৬-৭টি চুক্তি সম্পন্ন হবে আমরা আশা করছি। যৌথভাবে তিনটি প্রকল্পের উদ্বোধনও তারা করবেন।’ হাসিনার এই সফরে ৮টি মউ চুক্তি হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে। বিগত ১০ বছরে দু-দেশের মধ্যে ১০০টিরও বেশি চুক্তি হয়েছে। চার দিনের সফরে গত বৃহস্পতিবার, ৩ অক্টোবর ভারতে আসেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

প্রসঙ্গত, চলতি সফরে এর আগেও মোদীর মুখোমুখি হয়েছিলেন হাসিনা। তখন এনআরসি নিয়ে প্রাথমিক আলোচনা হয় দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে। নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করে এনআরসি প্রসঙ্গে অনেকটাই আশ্বস্ত দেখায় হাসিনাকে। ফলে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে যে এনআরসি ইস্যু থাকবে তা চোখ বন্ধ করে বল দেওয়া যায়। এছাড়াও তিস্তার জল বণ্টন নিয়েও বাংলাদেশের সঙ্গে আলোচনা করবে ভারত। পাশাপাশি রোহিঙ্গা ইস্যুও উঠে আসতে পারে।

অন্যদিকে, ভারত পেঁয়াজের রফতানি বন্ধ করে দেওয়ায় খুব একটা সুবিধাজনক অবস্থায় নেই বাংলাদেশ। শুক্রবার দিল্লিতে ইকনমিক সামিটে ভাষণ দেওয়ার সময় হঠাৎই হাসতে হাসতে পেঁয়াজ প্রসঙ্গ তোলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী৷ হিন্দিতে বলেন, ‘পেঁয়াজ নিয়ে আমাদের অসুবিধা হয়ে গিয়েছে৷ আমি জানি না, কেন আপনারা সব পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিলেন৷ আমি তখন কী করলাম৷ আমি কুককে বলেছি, পেঁয়াজ দিয়ে আর খাবার বানিও না৷ পেঁয়াজ বন্ধ করো৷ একটু আগে যদি নোটিস দিতেন, তা হলে ভালো হত৷ তা হলে আমরা অন্য জায়গা থেকে পেঁয়াজ নিতে পারতাম৷ ভবিষ্যতে এ-রকম সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আমাদের একবার বলবেন৷’ হাসিনা এই কথাগুলি হাসতে হাসতে বললেও আচমকা পেঁয়াজ রফতানি বন্ধ করার সিদ্ধান্তে যে বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী খুশি নন তা তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here