ডেস্ক: লক্ষ্য ত্রিপুরা জয়, সেই উদ্দেশ্যে এবার নিজের সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ২৫ বছরের বাম রাজত্বের অবসান করতে ত্রিপুরায় নির্বাচনী সফরে গিয়ে ঝুলি থেকে একের পর এক তোপ দাগলেন মোদী। সোনামুড়ার ভাষণ শেষে স্পষ্ট, সর্বভারতীয় রাজনীতির নিরিখে তুলনামূলক ভাবে ব্রাত্য রাজ্য ত্রিপুরার মানুষকে কাছে টেনে উন্নয়নের আশা দেখিয়ে নির্বাচন জেতার ছক নিয়ে নেমেছেন তিনি। বামেদের অষ্টম সরকার গঠনের পথে একমাত্র কাঁটা যে বিজেপি, তা ভাল করেই জানেন মোদী। গুজরাতে যেমন প্রচারের ঝড় তুলে শেষ দফায় কংগ্রেসের মুখ থেকে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিলেন, একই ভাবে ত্রিপুরাতেও লালদূর্গ ভেঙে পদ্মফুল ফোটাতে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন তিনি।

একনজরে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ

  • ত্রিপুরা অর্থাৎ ত্রিপল T- Trade (বাণিজ্য), Tourism (পর্যটন), Traning of the Youth (যুব শিক্ষা)। এই তিনটি T-র মাধ্যমই হল প্রধান লক্ষ্য।
  • ‘মানিক’ নয়, ত্রিপুরার অধিকার ‘হিরা’– মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারকে কটাক্ষ, ত্রিপুরার মানুষ ‘মানিক’ নয়, ‘হিরা’ পধিকার করেন। HIRA অর্থাৎ H-হাইওয়ে, I (i way)-ডিজিটাল ইন্ডিয়া, R-রোডওয়ে, A-এয়ারওয়ে।
  • চিটফান্ড– ত্রিপুরার গরীব মানুষদের শেষ করে দিয়েছে রোজভ্যালির মতো চিটফান্ড। দোষীদের উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে।
  • ভয়াবহ পরিস্থিতি– ত্রিপুরা সরকার সকলের মধ্যে ভয়ের পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছে। যারা বিরোধিতা করতে চান তারা ভয় পান।
  • ত্রিপুরায় নির্বাচনী স্লোগান ‘চলো পাল্টাই’– ত্রিপুরাবাসীর মন জয় করতে বাংলা বললেন মোদী। বিধানসভা নির্বাচনে এবার বিজেপির ডাক ‘চলো পাল্টাই’। মোদী বললেন, আপনারাই আমায় শিখিয়েছেন ‘চলো পাল্টাই’।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here