নিজস্ব প্রতিবেদক, ইসলামপুর: দাঁড়িভিট কান্ডের তদন্ত করতে বৃহস্পতিবার জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের ৫ সদস্য পৌঁছালেন দাঁড়িভিট গ্রামে । মৃত দুই ছাত্র তাপস ও রাজেশের বাড়িতে গিয়ে তাদের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথাও বলেন তারা। স্কুল পড়ুয়া ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গেও আলাদা আলাদাভাবে কথা বলে ঘটনার বিবরণ শোনেন মানবাধিকার কমিশনের সদস্যরা। প্রসঙ্গত, সোমবার কমিশনের তিন সদস্য ইসলামপুরে আসেন। এরপর বুধবার কমিশনের ডিআইজি ছায়া শর্মা সহ আরও দুই সদস্য দাঁড়িভিটে আসেন। তার নেতৃত্বেই টিমটি এদিন দাঁড়িভিট গ্রামে এসে তদন্ত শুরু করেছে।

প্রসঙ্গত, দাঁড়িভিট স্কুলে শিক্ষকের দাবিতে ২০ সেপ্টেম্বর পড়ুয়াদের আন্দোলন ঘিরে ছাত্র পুলিশ সংঘর্ষ হয়। গুলিতে নিহত হয় রাজেশ ও তাপস নামে দুই ছাত্র। এরপর মৃতদের পরিবার সিবিআই তদন্তের দাবি তোলেন। এখনও তারা তাদের দাবিতে একইভাবে অনড় রয়েছেন। মৃত রাজেশের বাবা নীলকমল সরকার ও তাপসের বাবা বাদল বর্মন দিল্লিতে গিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনে অভিযোগ করেন। সমাজ কর্মী শ্রীরুপা মিত্র চৌধুরিও জাতীয় মানবাধিকার কমিশনে অভিযোগ করেছেন। মোট তিনটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে কমিশনে। ঘটনার পর রাজ্য সরকার সিআইডির হাতে তদন্তভার দিয়েছে। কিন্তু মৃতদের পরিবারের সঙ্গে এখনও সিআইডির প্রতিনিধিরা দেখাই করেনি বলে অভিযোগ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here