ডেস্ক: কেন্দ্রে সরকার গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করবে বিজু জনতা দল (বিজেডি)। দাবি করলেন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক। রবিবার তিনি বলেন, লোকসভা নির্বাচনে কোনও জাতীয় দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারবে না। তাঁর দাবি, কেন্দ্রে এবার সরকার গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করবে বিজেডি। নারায়ণগড় জেলায় এক নির্বাচনী প্রচারে নবীন বলেন, লোকসভা নির্বাচনে কোনও জাতীয় দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে না। ফলে কেন্দ্রে পরবর্তী সরকার গঠনে আমরাই চুড়ান্ত ভূমিকা গ্রহণ করব। আমাদের কাছে এটা এক সুবর্ণ সুযোগ। ওড়িশার ২১টি লোকসভা আসনের ২১টিতেই জয়ী হবেন বিজেডি প্রার্থীরা।

বিজেডি সুপ্রিমো আরও বলেন, আমরা ওড়িশার প্রতি ঐতিহাসিক অবিচারের সমাপ্তি ঘটাবো। রাজ্যকে বিশেষ ক্যাটাগরি মর্যাদা দেওয়ার জন্য লড়াই চালিয়ে যাব। এতে প্রচুর পরিমাণে উপকৃত হবে রাজ্য। আমাদের যুবকরা চাকরি পাবে। আরও অর্থ বরাদ্দের কারণে উন্নয়নের জোয়ার আসবে। এদিন ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, নির্বাচনী ইস্তেহারে ওড়িশাকে বিশেষ ক্যাটাগরি মর্যাদা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিজেপি। কিন্তু কেন্দ্রে সরকার গঠনের পর বিজেপি এই প্রতিশ্রুতির কথা ভুলে যাবে।

নির্বাচনী প্রচারে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগেও সরব হন নবীন। তিনি বলেন, সারা দেশের মধ্যে ওড়িশায় রেলের নেটওয়ার্ক সবচেয়ে খারাপ। অথচ,ওড়িশা থেকে অনেক বেশি আয় হয় ভারতীয় রেলের। রেল এই রাজ্য থেকে আয় করে ২০ হাজার কোটি। কিন্তু ওড়িশা পায় মাত্র হাজার কোটি। এখান থেকে লাভ করে অন্য রাজ্যে ব্যয় করে রেল। কিন্তু এখানে কিছু করে না। তাঁর প্রশ্ন, এটা কী কেন্দ্রের বঞ্চনা নয়? বিজেডি সুপ্রিমো আরও বলেন, কয়লা শিল্প থেকে হাজার হাজার কোটি টাকা রাজস্ব সংগ্রহ করে কেন্দ্রীয় সরকার। আর ওড়িশার প্রাপ্তি হয় ধূলো ও দূষণ। ওড়িশা এর কিছু পায় না। বিজেপিকে আক্রমণ করে নবীন এদিন বলেন, ওড়িশার জন্য কখনও লড়বেন না এ রাজ্যের বিজেপি নেতারা। কারণ, দিল্লিতে বসে কেন্দ্রীয় নেতারা তাঁদের নিয়ন্ত্রণ করেন। বিজেডি ওড়িশারই দল, আমাদের হাইকমান্ডও ওড়িশার। রাজ্যের সাড়ে চার কোটি মানুষই আমাদের রিমোট কন্ট্রাল। বিজেডিই একমাত্র ওড়িশার মূল্যবোধ এবং উন্নয়ন নিয়ে লড়াই করেন বলেও জানান তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here