ডেস্ক: সমুদ্রে ক্ষমতাবৃদ্ধির দৌড়ে রাশিয়ার সাহায্যে ফের আরেক ধাপ এগিয়ে যেতে চলেছে ভারত। সম্প্রতি নতুন দিল্লি এবং মস্কোর মধ্যে একটি প্রতিরক্ষা সম্পর্কিত চুক্তি চূড়ান্ত হয়েছে। এই চুক্তির মাধ্যমে রাশিয়ার থেকে ৪টি অত্যাধুনিক মানের যুদ্ধজাহাজ ‘ফ্রিগেট’ ক্রয় করবে ভারত। এই চারটি জাহাজ কিনতে প্রায় ২০০ বিলিয়ন ডলার খরচ হবে ভারতের। অর্থাৎ প্রতিটি জাহাজ কিন্তু ভারতের কাছ থেকে ৫০ বিলিয়ন ডলার নেবে রাশিয়া। রাশিয়ার প্রতিরক্ষা সূত্রে জানা গিয়েছে এই জাহাজগুলির নাম ‘কিরভাক ক্লাস ৩’।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মেড ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের আওতায় তৈরি করা হবে এই জাহাজগুলি। চুক্তি অনুসারে প্রথম দুটি জাহাজ নির্মান হবে রাশিয়ার ‘ইয়ান্তার’ বন্দরে। বাকি দুটি জাহাজ ভারতের গোয়া বন্দরে তৈরি হবে। চুক্তি একবার সই হলে তার ৪ বছরের মধ্যেই এক এক করে ভারতে আসা শুরু করবে জাহাজগুলি।

ইতিমধ্যেই ছটি ‘কিরভাক ক্লাস ৩’-এর জাহাজ রয়েছে ভারতীয় নৌসেনায়। ২০০৩-০৪ সালের মধ্যে নৌসেনায় চলে আসে প্রথম তিনটি জাহাজ, দ্বিতীয় ধাপে ২০১২-১৩ সালে বাকি তিনটি জাহাজ এসে পৌঁছায়। বর্তমানে এই চুক্তি স্বাক্ষরিত হলে আগামী ৭ বছরের মধ্যে ১০টি কিরভাক যুদ্ধ জাহাজ চলে আসবে ভারতীয় নৌসেনায়। তবে কয়েক বছর আগে সেনা বাহিনীতে যোগ দেওয়া জাহাজগুলির তুলনায় নতুন জাহাজগুলির প্রযুক্তি অনেকটাই উন্নত মানের হবে বলে জানা গিয়েছে।

আগের জাহাজগুলির তুলনায় ওজন অনেকটাই বেশি হবে এই জাহাজগুলির। বর্তমান চুক্তিতে জাহাজগুলির ওজন হতে চলেছে ৫৬০০ টন। কিন্তু আগের জাহাজগুলি ওজন ছিল ৪০০০ টন। দুটি জাহাজের মধ্যে আরও একটি উল্লেখযোগ্য পার্থক্য হল, প্রথম পর্যায়ের ফ্রিগেটগুলিতে একটি করে সামরিক হেলিকপ্টার কামভ-৩১ রাখার জায়গা ছিল। কিন্তু অত্যাধুনিক জাহাজগুলি দুটি করে সামরিক হেলিকপ্টার রাখার জায়গা হবে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের সঙ্গে এই চুক্তির ফলে এই প্রথম দেশের মাটিতেই তৈরি হবে রাশিয়ার এই অত্যাধুনিক যুদ্ধজাহাজ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here