ডেস্ক: ছত্তিসগড়ে মাওবাদীদের দাপট যে এখনও ব্যাপকভাবে রয়েছে তা তা স্বীকার করে নিয়েছেন সেখানকার প্রশাসনিক কর্তারা। মাওবিরোধী অভিযান নেমে এখনও পর্যন্ত সেখানে একাধিক মাওবাদীর মৃত্যুর পাশাপাশি সেনা ও পুলিশের শহিদের সংখ্যাটাও কম নয়। নিজেদের দাপট বজায় রাখতে ছত্তিসগড়ে মাওবাদীরা একের পর এক পন্থা অবলম্বন করছে। সেই তালিকায় নবতম সংযোজন পেন গান। আর তা দিয়েই সিআরপিএফ ও নিরাপত্তারক্ষীদের উপর চরম আঘাত হানতে চাইছে তারা।

সম্প্রতি ছত্তিসগড়ের দান্তেওয়াড়া জেলার তিমিনার ও পুশনার জেলার বেশ কয়েকটি জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালায় সিআরপিএফ। মাও অধ্যুষিত এই সমস্ত জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয় দুটি ইনস্যাস, ৩.‌৩ রাইফেল এবং ১২ বোরে শর্টগান কিন্তু এগুলির মধ্যে সিআরপিএফের কপালে যে জিনিসটি সবচেয়ে বেশি চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে তা হল পেন গান। দেখতে পেনের মতো হলেও আদতে সরু পাইপ গান এটি। ৯এমএম বুলেট ব্যবহার করা হয় এই অস্ত্রে। সরু পাইপের মধ্যেই লুকিয়ে রাখা থাকা বুলেট। এবং কলমের নিবটি ব্যবহার করা হয় বুলেট হিসাবে। নয় থেকে দশ মিটার পর্যন্ত এই বন্দুকের গুলি লক্ষ্যভেদ করতে পারে।

পুলিশের তরফে জানা গিয়েছে, নক্সালদের একটি প্রযুক্তিগত দক্ষ টিম এই পেন গান তৈরি করছে। আপদকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্যই এই পেন গান তৈরি করেছে মাওবাদীরা। এই পেন গানের ঘটনা প্রথম নজরে আসে বৈরামগড় এলাকার মাও অভিযানের সময়। মাওবাদী কমান্ডার জৈনি পুলিসের সঙ্গে সংঘর্ষ চলাকালীন এই পেন গান ব্যবহার করেছিল। পুলিসের গুলিতে আহত হয়ে ইনস্যাস চালাতে পারছিলেন না তিনি। তখন এই পেন গান ব্যবহার করে ওই মাওবাদী। এছাড়াও, প্রকাশ্যের কারও উপর হামলা চালানোর জন্য মাওবাদীদের কাজে লাগে এই অস্ত্র। সবার চোখ এড়িয়ে অস্ত্র হাতে পৌছে যাওয়া যায় লক্ষ্যের কাছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here