news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা মহামারীর জেরে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ সব স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়। কার্যত এডুকেশন ইমারজেন্সি চলছে ভারত সহ গোটা বিশ্বে। এরই মাঝে ব্রিটেনের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘সেভ দ্য চিলড্রেন’এর দাবি, এই করোনা সংকটের ফলে আর হয়তো স্কুলে যাওয়া হবে না প্রায় এক কোটি পড়ুয়ার।

ইউনেস্কোর এক রিপোর্টে সামনে ধরে সেভ দ্য চিলড্রেন জানিয়েছে, গত এপ্রিল মাসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে যাওয়ার ফলে পড়াশোনায় ব্যাঘাত ঘটেছে ১৬০ কোটি পড়ুয়ার, যা বিশ্বের মোট ছাত্রসংখ্যার ৯০ শতাংশ। মানব সভ্যতার এই প্রথম গোটা একটি প্রজন্মের পড়াশোনায় একসঙ্গে এই ভাবে ব্যাঘাত ঘটল।

করোনার ফলে যে অর্থনৈতিক মন্দা দেখা দিয়েছে তার ফলে আরও ১১ কোটি শিশু দারিদ্র সীমার নীচে চলে যাবে। আর এর ফলেই অল্পবয়সে ছেলেরা যেমন কাজের সন্ধানে বের হতে বাধ্য হবে, তেমনই অল্প বয়সে মেয়েদের বিয়ে দিয়ে দেওয়ার প্রবণতা বাড়বে। ফলে প্রায় ৯৭ লক্ষ পড়ুয়া আর কখনও স্কুলেই যাবে না। একই সঙ্গে ওই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, এই মহামারীর ফলে যে মন্দা দেখা দিয়েছে তার ফলে অনুন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলোতে শিক্ষা বাজেটে ৭৭ বিলিয়ন ডলার ঘাটতি দেখা দেবে আগামী বছর।

সেভ দ্য চিলড্রেনের চিফ এক্সেকিউটিভ ইঙ্গার আশিং জানান, ‘এই এডুকেশন ইমারজেন্সির ফলে ১০ কোটি পড়ুয়া আর হয়তো স্কুলে ফিরবে না। প্রত্যেক সরকারের এই মুহূর্তে কিছু করা উচিত। এমনিতেই এখনও ছেলে ও মেয়ে, ধনী ও দরিদ্র পড়ুয়াদের মধ্যে বৈষম্য রয়েছে। এখন যা পরিস্থিতি, এই বৈষম্য আগামীদিনের আরও বাড়তে চলেছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here