farmer
ক্ষমতা যখন তাঁদের হাতে

মহানগর ডেস্ক: নভেম্বরের ২৬ তারিখ থেকেই দিল্লির সীমান্তে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন কৃষকরা। বার বার নানা প্রতিকূলতার মুখে পড়তে হয়েছে এই কৃষক আন্দোলনকে। কিন্তু তাঁরা দমে যাননি। এবার আন্তর্জাতিক নারী দিবসে ক্ষমতা দেখাতে কৃষক আন্দোলনের নেতৃত্ব দিতে আসছেন মহিলারা। জানা গিয়েছে, পঞ্জাব, হরিয়ানা থেকে দিল্লির সীমান্তে প্রায় ৪০ হাজার মহিলা আসছেন বলে জানা গিয়েছে। তাঁরা বোঝাতে চাইছেন, যাঁরা রাঁধে, তাঁরা লাঙনও ধরে প্রয়োজনে তাঁরা আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে পারেন।

৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। এই নারী দিবসের দিন কোথাও গহনা, জিনিসপত্র কেনাতে মহিলাদের ছাড় দেওয়া হয়, কোথাও মহিলাদের উপহার সম্মান দেওয়া হয়। কিন্তু মহিলাদের সীমা শুধু শপিংমল বা উপহারে নয়, মহিলাদের জায়গা কাস্তে হাতে আউশ ধানের মাঠেও হতে পারে কিংবা পতাকা হাতে মিছিলের শুরুতে। এবারের আন্তর্জাতিক নারী দিবসে অন্য মাত্রা আনার পরিকল্পনা করেন কৃষকরা। তাঁদের এই আন্দোলনের নেতৃত্ব মহিলাদের হাতে তুলে দেওয়ার পরিকল্পনা করেন। কৃষক নেতা যোগেন্দ্র যাদব জানিয়েছেন, দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে কয়েক হাজার মহিলা এই আন্দোলনে যোগ দিচ্ছেন। প্রায় ৪০ হাজার মহিলা এই আন্দোলনে যোগ দিচ্ছেন। ইতিমধ্যে দিল্লির সীমান্তে তাঁরা জড়ো হতে শুরু করছেন। দিল্লি ও হরিয়ানা থেকে অনেক মহিলাই ট্র্যাক্টরে চেপে দিল্লির সীমান্তে আসছেন বলে জানা গিয়েছে।

১০০ দিন পার হয়ে গেছে কৃষক আন্দোলনের। কৃষকরা জানিয়েছেন, আইন তুলে না নেওয়া পর্যন্ত এই বিক্ষোভ চলতে থাকবে। এই আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। এই আন্দোলনকে দেশের কোনার কোনায় পৌঁছে দিতে নয়া সিদ্ধান্ত নিয়েছে কৃষকক সংগঠনগুলো। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, নির্বাচন হতে যাওয়া পাঁচটি রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে কৃষি বিরোধী আন্দোলনের বিরোধিতা করে প্রচার করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here