কংগ্রেসে গান্ধী পরিবারটাই আসল ‘ব্র্যান্ড’, বিকল্প সভাপতির ভবিষ্যৎ কঠিন হবে: অধীর

0
288

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সংকটময় অবস্থায় দলের ভবিষ্যৎ নিয়ে মুখ খুললেন লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী। ঠিক যেই সময় কংগ্রেস নেতা খুঁজতে গিয়ে নাজেহাল হচ্ছে, সেই সময় বহরমপুরের পাঁচবারের সাংসদ নেতা বাছার বিতর্ক নিয়ে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করেছেন। লোকসভা ভোটে ভরাডুবির পর রাহুল গান্ধী দায় তুলে নিয়ে দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ালেও অধীর সেই গান্ধীবাদেই ভরসা রাখছেন। আর নেহেরু গান্ধীদের জুতোয় নতুন কারোর পক্ষে পা গলানো যে ভীষণ কঠিন বিষয় হবে তাও জানিয়েছেন তিনি।

পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে গান্ধী-নেহেরুদের ‘ব্র্যান্ড ইকুইটি’ সঙ্গে তুলনা করেছেন অধীর। অর্থাৎ সোজা ভাষায় বিশ্বাসযোগ্য একটা বিপণন সংস্থা। যেই সংস্থার পণ্য নিজের মানের চেয়েও কোম্পানির নামে চলে বেশি। গান্ধী-নেহেরুদের সংস্কৃতিটাই সেই ঘরনার বলে দাবি করেছেন কংগ্রেস। তবে নতুন নেতার পক্ষে কঠিন হলেও জাতপাতের রাজনীতির বিরুদ্ধে কংগ্রেসই জাতীয় স্তরে মোকাবিলা করার ক্ষমতা রাখে বলে জানিয়েছেন অধীর। কিন্তু দলের খারাপ সময়েও তিনি মনে করেন কংগ্রেসের ফের একবার উত্থান হবে। যুক্তি দিয়ে অধীর বুঝিয়েছেন, ‘যেভাবে স্থানীয় রাজনৈতিক দলগুলো কাজ করছে, আগামী দিনে তারা গুরুত্ব হারাবে। আর সেই দলগুলো গুরুত্ব হারানো মানে হল দেশ ফের দ্বিপদী রাজনীতির দিকে ঝুঁকবে। আর যখনই দ্বিপদী রাজনীতি আসবে, সেখানেই আমরা ফির আসব। ফলে আমাদের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল।’

কিন্তু জাতীয় রাজনীতিতে কেন ক্রমশ গুরুত্ব হারাচ্ছে আঞ্চলিক শক্তিগুলি? অধীরের কথায়, আদর্শগত অনুপ্রেরণা এবং জনসাধারণের সমর্থন আঞ্চলিক দলগুলোর হাতে নেই। সেই কারণে ভরসা রাখতে হবে জাতীয় কংগ্রেসের ওপরই। আর কংগ্রেসের এই খারাপ সময়ে সনিয়া গান্ধীই পারবেন দলীয় কর্মীদের তলানিতে ঠেকা আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনতে, বিশ্বাস অধীরের। কারণ নতুন সভাপতি এলেও এই গুরুদায়িত্ব বহন করা সবার কাজ নয় বলে জানিয়েছেন তিনি।

‘গান্ধী পরিবারের বাইরে কারোর পক্ষে এই কাজ করা সত্যিই কঠিন হবে। রাজনীতিতেও ব্র্যান্ড ইকুইটি বলে একটা জিনিস থাকে। এই মুহূর্তে বিজেপির দিকে তাকান, নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহকে ছাড়া কি দল স্বাভাবিকভাবে চলতে পারবে? সেরকমই আমাদের কংগ্রেসে গান্ধী পরিবার হল ব্র্যান্ড ইকুইটি। এতে কোনও ক্ষতি নেই। ওদের যেরকম ক্যারিশ্মা আর কারোর সেরম নেই। কঠিন বাস্তব এটাই।’ বর্তমান বিজেপির সঙ্গে কংগ্রেসের তুলনা টেনে বলেন অধীর।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here