news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সম্প্রতি এক নয়া ম্যাপ তৈরি করে কালাপানি সহ একাধিক অঞ্চলকে নিজেদের বলে দাবি করেছিল নেপাল সরকার। সেই ধারা অব্যাহত রেখে এবার ভারতের নৈনিতাল ও দেরাদুনকে নিজেদের অঞ্চল বলে দাবি করে বসল নেপাল। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর ভারত-নেপাল কূটনৈতিক সম্পর্ক উত্তপ্ত হয়ে ওঠার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। নেপালের এমনধারা দাবি চিনের উস্কানিতেই হচ্ছে বলে অনুমান বিশেষজ্ঞদের।

সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, নেপালের প্রধানমন্ত্রী অলির দল নেপাল কমিউনিস্ট পার্টি, ইউনিফায়েড নেপাল ন্যাশনাল ফ্রন্টের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে গ্রেটার নেপাল ক্যাম্পেনিং শুরু করেছে। যেখানে ১৮১৬ সালের আগে নেপালের যে ম্যাপ ছিল সেই ম্যাপের প্রচার করা হচ্ছে। অতীতের সেই ম্যাপ অনুযায়ী ভারতের হিমাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড, বিহার, উত্তর প্রদেশ এমনকি সিকিমের একাধিক শহরকে নিজেদের বলে দাবি করছে তারা। ভারতের বিরুদ্ধে উস্কানি দিয়ে ভুল বোঝানো হচ্ছে নেপালের সাধারণ মানুষকে। জানা গিয়েছে টুইটার ফেসবুক এমনকি ইউটিউব গ্রেটার নেপালের তরফে নেপালের যুবক-যুবতীদের দিয়ে এই ধরনের প্রচার চালানো হচ্ছে। ছড়ানো হচ্ছে কুৎসা।

এ প্রসঙ্গে ভারত-নেপাল সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ শ্রীবাস্তব সংবাদমাধ্যমকে বলেন, নেপালে কমিউনিস্ট পার্টি ক্ষমতায় আসার পর থেকেই গ্রেটার নেপাল নিয়ে মেতে উঠেছে সেখানকার যুব সম্প্রদায়। এখানে প্রত্যক্ষ মদদ যোগাচ্ছে সরকার। নিজেদের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে রাষ্ট্রসঙ্ঘের সরব হয়ে উঠেছিল নেপাল প্রশাসন। যদিও তাদের সেই অবান্তর দাবি ধোপে টেকেনি। এরপর ভারত-চিন সীমান্ত সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর প্রত্যক্ষভাবে চিনের মদত পাচ্ছে নেপাল। যার ফলে নতুন করে বাড়াবাড়ি শুরু হয়েছে গ্রেটার নেপালের। এটা তারই এক নমুনা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here