নিজস্ব প্রতিবেদক, বারুইপুর: টাকা চাওয়ায় বুধবার রাতে ভাঙড়ে ভাইপোদের হাতে খুন হতে হল কাকাকে। দক্ষিন ২৪ পরগনা জেলার ভাঙরের কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স থানার বামন ঘাটা শ্রীফল তলা এলাকার ঘটনা। ঘটনায় মৃত ব্যক্তির নাম বদন মন্ডল(৪০)। অভিযোগের তির তিন ভাইপো রবিন মন্ডল, প্রশেন মন্ডল এবং মিঠু মন্ডলের দিকে।

মৃত বদন মন্ডলের পরিবারের তরফ থেকে জানা গিয়েছে ফিশারির লিজের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে গণ্ডগোল ছিল দুই পরিবারের মধ্যে। বিষয়টি অবশ্য এর আগে অবশ্য স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বকে জানানো হয়েছিল বলে জানান মৃত বদন মন্ডলের পরিবার। এরপরই তৃণমূল নেতৃত্ব বদন মন্ডলের ভাইপোদের নির্দেশ দিয়েছিল পাওনা টাকা দিয়ে দিতে। কিন্তু তার পরেও বদনবাবু পায়নি সেই টাকা । সেই জন্যই বুধবার রাতে টাকা চাইতে গিয়েছিলেন তিনি। সেই সময় টাকা দাওয়া তো দূরে থাক বরং তার ভাইপোরা তাকে গালাগালি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়। ওখান থেকে বদন মণ্ডল চলে আসলে কিছু সময় পর বদনের মদ্যপ ভাইপোরা বদন বাবুর বাড়ি গিয়ে তার ওপর চড়াও হয়ে মারধর শুরু করে। রড বাস নিয়ে বেধড়ক মারধর করে বদন মণ্ডলকে। ঘটনাস্থলে সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়ে বদন। তাকে উদ্ধার করতে আসলে মারধর করা হয় তার স্ত্রী ও মেয়েদেরকে। সংজ্ঞাহীন অবস্থায় বদনের পরিবার মাটিতে লুটিয়ে পড়লে চলে যান তারা।

এরপর আহত অবস্থায় বদন মণ্ডলকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ডাক্তাররা মৃত বলে ঘোষণা করে। খবর পেয়ে কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। ঘটনার পর থেকে পলাতক রবিন মন্ডল প্রশান মন্ডল এবং মিঠু মন্ডল। কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স থানায় ওই তিন যুবকের নামে খুনের অভিযোগ দায়ের করেছে বদন মন্ডলের পরিবার। পুলিশ অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে। এখন পর্যন্ত কাউকে আটক বা গ্রেফতার করতে পারেনি কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here