ডেস্ক: ত্রিপুরার লেলিন, বঙ্গের শ্যামাপ্রসাদের পর এবার বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশের জব্বলপুরে লাল কালি মাখিয়ে দেওয়া হয় নেতাজি সুভাষ চন্দ্রের মূর্তিতে। শুধু তাই নয়, ভেঙ্গেও ফেলা হয় নেতাজির মূর্তি শুক্রবার এই ঘটনার নজরে আসার পর খবর দেওয়া হয় পুলিশে। এই ঘটনার জেরে আলোড়ন শুরু হয়েছে মধ্যপ্রদেশ জুড়ে।

শুরুটা হয়েছিল ত্রিপুরা থেকে দীর্ঘদিনের সিপিএমকে সরিয়ে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর বুলডজার দিয়ে সেখানে ভেঙে ফেলা হয় লেলিনের মূর্তি। এরপরই এই ঘটনার রেষ ছড়িয়ে পড়ে গোটা ভারতবর্ষ জুড়ে। পশ্চিমবঙ্গের কেওড়ালতা মহাশ্মশানের কাছে ভাঙা হয় শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের মূর্তি। উত্তর প্রদেশে বাবা সাহেব আম্বেদকরের মূর্তি। দক্ষিন ভারতে পেরিয়ারের মূর্তি ভাঙে বিক্ষুব্ধরা। কেরলে আক্রমণ হানা হয় গান্ধীজীর উপরেও। সেই প্রবণতা থেকে এবার বাদ পড়লেন না স্বাধীনতা সংগ্রামী নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু।

এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেপ্তার না হলেও। পুলিশের সূত্রে খবর, গতকাল রাতে এই ঘটনা ঘটিয়েছে দুষ্কৃতীরা। স্থানীয় মানুষের অভিযোগের ভিত্তিতে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই গ্রেপ্তার করা হবে অভিযুক্তদের। অন্যদিকে, শুরুটা যেখান থেকে এই ঘটনার সূত্রপাত সেই ত্রিপুরার বিজেপি নেতা লেলিনের মূর্তি ভাঙা প্রসঙ্গে এদিন বলেন, ‘ত্রিপুরায় কোনও মূর্তি ভাঙা হয়নি, মূর্তি এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় স্থানান্তর করা হচ্ছিল। যারা মূর্তি ভাঙার তথ্য দিচ্ছেন তাঁরা মিথ্যা কথা বলছেন। মূর্তি ভাঙার এই রীতির প্রতিবাদ জানিয়েছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here