srilanka

ডেস্ক: আতঙ্ক যেন শ্রীলঙ্কার পিছু ছাড়ছে না! গত দু-দিনে কলম্বোয় নয়টি বিস্ফোরণে ৩৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন প্রায় ৫০০ জন। এর রেশ কাটতে না কাটতে বুধবার ফের কলম্বোর এক জনবহুল স্থান থেকে একটি তাজা বোমা উদ্ধার হয়েছে। বোমাটি কীভাবে ওই জনবহুল এলাকায় এল, কারা রেখেছিল তা এখনও জানা যায়নি। জঙ্গিরা আগের দু-দিনের মতো নাশকতার উদ্দেশ্যেই বোমাটি রেখেছিল বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান। তদন্ত শুরু হয়েছে।

গত রবিবারের ভয়াবহ জঙ্গি হামলার ব্যাপারে শ্রীলঙ্কাকে আগেই সতর্কবার্তা পাঠিয়েছিল ভারত। এমনকি রবিবারের প্রথম বিস্ফোরণের দুঘণ্টা আগেও সতর্কবার্তা এসেছিল বলে শ্রীলঙ্কার এক নিরাপত্তা আধিকারিক জানিয়েছেন। যদিও সেই সমস্ত সতর্কবার্তা কোনো কাজে আসেনি। দেশের নিরাপত্তা বাহিনীর অধস্তন কর্মীদের কাছে সেই সতর্কবার্তা ঠিকমতো পৌঁছোয়নি এবং তার ফলেই হামলার মোকাবিলা করা সম্ভব হয়নি বলে আক্ষেপ করেছেন শ্রীলঙ্কার প্রধানমন্ত্রী রনিল উইক্রিমেসিঙ্ঘে। সেই ভুলের পুনরাবৃত্তি তিনি আর করতে চান না। তাই মঙ্গলবার দ্বীপরাষ্ট্রে পুনরায় হামলা হওয়ার ব্যাপারে ভারত সতর্কবার্তা পাঠাতেই নড়েচড়ে বসেন শ্রীলঙ্কার আধিকারিকেরা। বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশিও শুরু হয়। সেই তল্লাশি অভিযানেই এদিন একটি তাজা বোমা উদ্ধার হয়। খবরটি প্রকাশ্যে আসতেই সকলের মধ্যে নতুন করে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। যদিও কোন জায়গা থেকে তাজা বোমাটি উদ্ধার হয়েছে তা স্পষ্ট করেনি কলম্বো পুলিশ। তবে পুলিশ-প্রশাসনের তত্পরতায় এদিন আর একটি নাশকতা থেকে যে কলম্বো রক্ষা পেল, তা বলা বাহুল্য।

প্রসঙ্গত, রবিবার সকালে তিনটি গির্জা ও চারটি হোটেল মিলিয়ে পরপর ৮টি বিস্ফোরণ হয়। সোমবার বিকালে কলম্বোর আর একটি হোটেলে নবম বিস্ফোরণটি ঘটে। তারপর মঙ্গলবার বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করে নেয় আইএস জঙ্গিগোষ্ঠী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here