ডেস্ক: রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নতুন গভর্নর হচ্ছেন শক্তিকান্ত দাস। প্রাক্তন অর্থ বিষয়ক সচিব এবং বর্তমানে ফেডারেল ফিনান্স কমিশনের সদস্য হলেন শক্তিকান্ত দাস। উর্জিত প্যাটেলের পদত্যাগের পর রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর হিসেবে যে নামটা সবচেয়ে বেশি উঠে আসছিল তিনি হলেন শক্তিকান্ত। অবশেষে তিনিই গভর্নরের পদে আসীন হলেন। প্রসঙ্গত, তাঁর সময়ই নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

গতকালই রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন উর্জিত প্যাটেল। কেন্দ্রের সঙ্গে আরবিআইয়ের যে সংঘাত সামনে এসেছিল তারপরই উর্জিত প্যাটেল ইস্তফা দিতে পারেন বলে গুঞ্জন ছড়িয়েছিল। তারপর কাল সেই গুঞ্জনকেই সত্যি করে পদত্যাগ করেন উর্জিত প্যাটেল। কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, ব্যক্তিগত কিছু সমস্যার জন্যই তিনি নিজের পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২০ আগস্ট। নোটবন্দি নামক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার ঠিক দু’মাস আগে উর্জিত প্যাটেলকে গভর্নর করে আনে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু বিগত কয়েক মাসে কেন্দ্রের সঙ্গে তলানিতে এসে ঠেকে সম্পর্ক। কেন্দ্রের হস্তক্ষেপের পাশাপাশি একাধিক অভিযোগও ছিল কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে। সেই সূত্রে জানা যায়, ১৯ নভেম্বর পদত্যাগ করতে চলেছেন উর্জিত। কিন্তু কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের সঙ্গে বৈঠকের পর সেই সিদ্ধান্ত কয়েকদিনের জন্য আটকে ছিল। অবশেষে প্রকাশ্যেই টুইট করে পদত্যাগের বিষয়টি জানিয়ে দেন তিনি।

এই বিষয় নিয়ে মুখ খোলেন প্রাক্তন গভর্নর রঘুরাম রাজনও। তিনি বলেন, ‘ওঁর সিদ্ধান্তকে সম্মান জানানো দরকার। আমাদের বিশদে জানা প্রয়োজন তাঁর উপর এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কোনও চাপ তৈরি করা হয়েছিল কিনা।’ রাজন আরও বলেন, ‘আমার মনে হয় এটা এমন একটা বিষয় যা নিয়ে ভারতীয়দের চিন্তিত হওয়ার প্রয়োজন রয়েছে।’ কারণ সর্বাত্মক অগ্রগতি আমাদের অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানগুলি শক্ত থাকা অত্যন্ত জরুরি, এমনটাই মত রাজনের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here