news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর যে উপসর্গ গুলির কথা সামনে এসেছে তা মূলত সর্দি-কাশি, গলা ব্যথা, শ্বাসকষ্ট এবং জ্বর। সাধারণ মেয়ের মতোই করোনাভাইরাসের উপসর্গ, তাই প্রাথমিকভাবে এটি চিহ্নিত করা মুশকিল। এই নিয়ে আতঙ্কের মধ্যেই নতুন উপসর্গের সতর্কতা দিলেন ডাক্তাররা। তাদের কথায়, গা জ্বালাপোড়ার ক্ষত, এটাও হতে পারে করোনা আক্রান্ত রোগীর লক্ষণ! এই তথ্য সামনে আসতেই এখন নতুন করে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে সাধারণ মানুষের।

ডাক্তাররা জানাচ্ছেন, অনেক করোনা আক্রান্ত রোগীদের শরীরে বিশেষ করে পায়ের গোড়ালি বা আঙুলে ঘা দেখতে পাওয়া গিয়েছে। বাহ্যিক কোন উপসর্গ না থাকলেও, হঠাৎ করেই এই জায়গায় ঘা হচ্ছে রোগীদের। ডাক্তাররা মনে করছেন, করণা সংক্রমণ থেকেই এই উপসর্গ যা কোন ওষুধে সারছে না। এমন ঘটনাও লক্ষ্য করা গিয়েছে, ভাইরাস সংক্রমণের গোড়াতেই এমন উপসর্গ দেখা দিচ্ছে। কিছুদিন সেটি থাকার পরে নিজে থেকেই সেটি শুকোতে শুরু করছে। এরপরই সেই ব্যক্তির শুরু হচ্ছে শ্বাসকষ্ট। চিকিৎসকদের অনুমান, করোনা ভাইরাস শরীরে প্রবেশ করে কোষগুলিকে সংক্রামিত করার ফলে প্রদাহজনিত রোগ সৃষ্টি হয়। ঠিক এর কারণেই ওই ব্যক্তির শরীরে এমন উপসর্গ দেখা দেয়। এর পাশাপাশি আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে রক্তের উপরও প্রভাব প্রভাব ফেলে করোনাভাইরাস। শরীরের কোন অংশে রক্ত জমাট বাধলে ও এই ধরনের ঘা উৎপন্ন হওয়া সম্ভব। তাই ডাক্তাররা সর্তকতা দিয়ে বলছেন, কোন ব্যক্তির এমন উপসর্গ দেখা দিলেই সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে। তবে প্রাথমিকভাবেই করোনাভাইরাস হয়েছে এমন ভাবার কোনো কারণ নেই।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ডাক্তাররা নোভেল করোনাভাইরাসের দোসর গ্যাস্ট্রো করোনাভাইরাসের কথাও উল্লেখ করেছেন। যার উপসর্গ মূলত পেটে লক্ষ্য করা যায়। পেটে মোচড় দেওয়া বা ডায়রিয়ার উপসর্গ দেখা দিলে সেটি গ্যাস্ট্রো করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা তৈরি করছে। সাধারণভাবে পেট খারাপ বা পেটের অসুখ হলে যে উপসর্গ দেখা দেয় এর উপসর্গও একদম তাই। এক্ষেত্রেও ডাক্তাররা সচেতন থেকে পরীক্ষা করার পরামর্শই দিচ্ছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here