মহানগর ওয়েবডেস্ক: সারা বিশ্বে ক্রমেই ভয়াবহ থেকে আরও ভয়াবহ হচ্ছে করোনা পরিস্থিতি। ভ্যাকসিন না আসা পর্যন্ত করোনা থেকে মুক্তি নেই, মানছেন বিশেষজ্ঞরাও। কিন্তু অদ্ভুত এক মন্ত্রবলেই যেন শেষ ১০০ দিনে নিউজিল্যান্ডে একটিও করোনা কেস নেই। অবশ্যই সেখানে এখনও ২৩টি এক্টিভ কেস রয়েছে। কিন্তু তারা দেশে প্রবেশের সময় করোনা আক্রান্ত বলে জানা যায়।

এই প্রসঙ্গে সেদেশের এক স্বাস্থ্য আধিকারিক জানান, ‘টানা ১০০ দিন ধরে নতুন কোনও সংক্রামিতের খোঁজ না পাওয়া নিঃসন্দেহে খুবই ভাল খবর। কিন্তু আমাদের এই খবরে হাফ ছেড়ে বাঁচার কিছু নেই। এক মুহূর্তের জন্যও অসতর্ক থাকা যাবে না। অন্যান্য দেশে দেখেছি কীভাবে খুব অল্প সময়ের মধ্যে আবার এই ভাইরাস থাবা বসাতে পারে। ফলে ভবিষ্যতের জন্য আমাদের তৈরি থাকতে হবে।’

নিউজিল্যান্ডের জনসংখ্যা যদিও মাত্র ৫০ লক্ষ, তা সত্ত্বেও যে ভাবে সেখানকার প্রশাসন করোনা সংক্রমণ আটকানোর জন্য কাজ করেছেন, তা সারা বিশ্বের প্রশংসা কুড়িয়ে নিয়েছে। গোষ্ঠী সংক্রমণ রোধ করার জন্য নিউজিল্যান্ডের তারিফ করেছে হু। ফেব্রুয়ারিতে সেখানে প্রথম আক্রান্তের খোঁজ পাওয়ার পর থেকে মোট ১২১৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। শেষ সেখানে কোনও ব্যক্তি গোষ্ঠী সংক্রমণের শিকার হয়েছিলেন ১ মে।

ফলে সেখানে এখন কড়াকড়ি একেবারেই কম। জীবন যাত্রাও করোনা পূর্ববর্তী সময়ের মতো। সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিংয়ের কড়াকড়ি নেই, মানুষজন পার্ক বা স্টেডিয়ামে খেলা দেখতে যাচ্ছেন। তবে সীমান্তে কড়াকড়ি রয়েছে। বাইরে থেকে কেউ এলে তাকে ১৪ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকতে হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here