kolkata news
Highlights

  • মাত্র তিন মাস আগে বিয়ে বিয়ে হয়েছিল, এরইমধ্যে গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় খুনের অভিযোগ দায়ের করল বাপের বাড়ির লোকজন
  • ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগর থানার অন্তর্গত বনবনিয়া এলাকায়
  • এক আত্মীয়ের পরকীয়া সম্পর্ক ছিল স্বামীর যা নিয়ে মাঝেমধ্যে স্বামী-স্ত্রী অশান্তি লেগেই থাকত


নিজস্ব প্রতিনিধি, হাবড়া:
মাত্র তিন মাস আগে বিয়ে বিয়ে হয়েছিল। এরইমধ্যে গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় খুনের অভিযোগ দায়ের করল বাপের বাড়ির লোকজন। ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগর থানার অন্তর্গত বনবনিয়া এলাকায়। মঙ্গলবার সকালে অশোকনগর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে মৃতার পরিবার। তদন্তে নেমে বধূর স্বামীকে গ্রেফতার করেছে অশোকনগর থানার পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতার নাম তাপসী বিশ্বাস (২৪)। গত বছরের ১ ডিসেম্বর দেখাশোনা করে অশোকনগরের নিচু কয়াডাঙ্গা এলাকার বাসিন্দা তাপসীর সঙ্গে বনবনিয়ার বাসিন্দা পেশায় গেঞ্জি কারখানার কর্মী রুবেল দাসের বিয়ে হয়।

তাপসীর বাপের বাড়ির লোকজন জানিয়েছেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে সোমবার বিকেল সাড়ে চারটে নাগাদ তারা জানতে পারেন তাপসীকে হাবড়া স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। এরপর হাসপাতালে এসে তারা জানতে পারেন, হাসপাতালে আনার আগেই তাপসীর মৃত্যু হয়েছে। মৃতার শরীরে একাধিক জায়গায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তাই পরিবারের অনুমান, তাকে প্রথমে মারধর করে পরে ঝুলিয়ে খুন করা হয়েছে।

তাপসীর দাদা দিবাকর বিশ্বাস জানান, তাপসীর স্বামী রুবেলের সঙ্গে তার এক আত্মীয়ের পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। যা নিয়ে মাঝেমধ্যে স্বামী-স্ত্রী অশান্তি লেগেই থাকত। তাপসীর মৃত্যুর পেছনে এটাই প্রধান কারণ বলে মনে করছেন পরিবারের লোকেরা। পরিবারের তরফে অশোকনগর থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনায় অশোকনগর থানার পুলিশ অভিযুক্ত রুবেল দাসকে গ্রেফতার করে মঙ্গলবার দুপুরে বারাসত আদালতে পাঠিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here