ডেস্ক: নির্বাচনের আগেই সরগরম নাগাল্যান্ডের রাজনৈতিক মহল। উত্তর-পূর্বের এই রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে কেউ বিশেষ মাথা না ঘামালেও, বিজেপির সাধারণ সম্পাদক রাম মাধবের যৌন কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে আসার পরই নতুন কর চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। দিনকয়েক আগেই নাগাল্যান্ডের একটি পোর্টালে দাবি করা হয়েছিল, এক হোটেলে দুজন আপত্তিজনক অবস্থায় দেখা গিয়েছে এই প্রভাবশালী আরএসএস নেতাকে।

রাম মাধবের বিরুদ্ধে যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ তুলে সরব হয়েছে কংগ্রেস। মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী সুস্মিতা দেব টুইট করেছেন, ‘রাম মাধব নাগাল্যান্ডে হাতেনাতে ধরা পড়েছেন।’ একই সঙ্গে উত্তর–পূর্বাঞ্চলে বিজেপি–‌র ভারপ্রাপ্ত নেতা হিমন্ত বিশ্বশর্মার উদ্দেশে প্রশ্ন করেছেন, ‘এটা কি সত্যি?’ সওয়াল তুলেছেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধিও।

বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠে আসার পরই অভিযোগ দায়ের করা হয় সংশ্লিষ্ট পোর্টালটির বিরুদ্ধে আশ্চর্যজনক ভাবে অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর থেকেই তার আর কোনও হদিশ পাওয়া যাচ্ছে না। খবরটি ভুয়ো বলে দাবি তুলে রবিবার বিজেপির তরফ থেকে ডিমাপুর থানায় ওই পোর্টালের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়৷ সোমবার শিলংয়ে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রাজীব প্রতাপ রুডি অভিযোগ করে বলেন, এটি সম্পূর্ণ ভুয়ো খবর৷ রাম মাধবকে কালিমালিপ্ত করতে ইচ্ছা করে এই খবর করা হয়েছে৷

অন্যদিকে বাকি রাজ্যগুলির মতো নাগাল্যান্ডেও বিজেপি বিরোধী হাওয়া ওঠা শুরু হয়ে গিয়েছে। বিশেষ করে এই রাজ্যে হিন্দুরা সংখ্যালঘু হওয়ায় বিজেপির উগ্র হিন্দুত্বের এজেন্ডাকে পছন্দ করছেন সাধারণ মানুষ। নাগাল্যান্ড মূলত ক্রিস্টান ধর্মাবলম্বি হওয়ার ফলে, ব্যাপটিস্ট চার্চ কাউন্সিলের পক্ষ থেকে রাজ্যে হিন্দুত্ববাদীদের প্রভাব বাড়তে থাকায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে। যারা বিজেপিকে রাজ্যে ক্ষমতায় আনতে চাইছে কার্যত তাদের ভোট না দেওয়ার কথাই বলেছে এনবিসিসি। বাড়তে থাকা চাপের মধ্যেই নতুন করে যৌন কেলেঙ্কারির দাবি ওঠার ফলে রাজ্যে নির্বাচনের আগেই পিছিয়ে গিয়েছে বিজেপি।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here