news national

মহানগর ডেস্ক: ভারতে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৯৬ হাজারের বেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। করোনায় সব থেকে খারাপ পরিস্থিতি মহারাষ্ট্রে। মহারাষ্ট্রে ইতিমধ্যে সোম থেকে বৃহস্পতিবার নাইট কারফিউ জারি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত কঠোর লকডাউন ঘোষণা করেছে। মুম্বইয়ের পথে হাঁটল দিল্লি। মঙ্গলবার থেকে দিল্লিতে নাইট কারফিউ শুরু হয়েছে।

দিল্লি প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, রাতে সাত ঘণ্টার লকডাউন থাকবে। দিল্লিতে করোনা পরিস্থিতির অবনতির জেরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাত ১০টা থেকে ভোর পাঁচটা পর্যন্ত নাইট কারফিউ জারি থাকবে। এই সময় রাজধানীর রাস্তায় ঘোরাফেরা করতে ইপাসের প্রয়োজন হবে। এপ্রিলের ৩০ তারিখ পর্যন্ত দিল্লিতে নাইট কারফিউ জারি থাকবে বলে জানানো হয়েছে। দিল্লিতে করোনা পরীক্ষার তুলনায় পজিটিভির আর ৫ শতাংশ ছাড়িয়ে গিয়েছে।

মহারাষ্ট্রে করোনার জেরে চাপের মুখে স্বাস্থ্য পরিষেবা। করোনা রোগীদের শয্যা দিতে পারছে না। পুনের হাসপাতালে শয্যার ঘাটতি দেখা দিয়েছে। করোনা রোগীদের অক্সিজেন দিয়ে ওয়েটিং রুমে বসাতে বাধ্য হচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পুনের যশবন্ত চৌহান মেমোরিয়াল হাসপাতালে মোট ৪০০টা শয্যা রয়েছে। তার মধ্যে ৫৫টি আইসিইউ রয়েছে। হাসপাতালের তরফে জানানো হচ্ছে, যে সমস্ত করোনার রোগীরা আসছেন, তাঁদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দিচ্ছে। প্রত্যেককেই অক্সিজেন দিতে হচ্ছে। শয্যা না পাওয়া পর্যন্ত অক্সিজেন দিয়ে রোগীদের ওয়েটিং রুমে রাখতে হচ্ছে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here