This handout photo released on May 21, 2018 by the Mauritian Wildlife Foundation shows the Rodrigues Fruit Bat on Rodrigues in the Western Indian Ocean on April 23, 2018. Animal and plant species are vanishing -- sometimes before we know they exist -- at an accelerating pace, but conservationists are pushing back against the juggernaut of mass extinction. From captive breeding to satellite tracking; restoring habitats to removing predators; shaming multinationals to nursing baby pandas and orangutans -- in all these ways, scientists and other have given doomed creatures a second chance. / AFP PHOTO / MAURITIAN WILDLIFE FOUNDATION / Jacques de Speville / RESTRICTED TO EDITORIAL USE - MANDATORY CREDIT "AFP PHOTO / MAURITIAN WILDLIFE FOUNDATION/JACQUES DE SPEVILLE"" - NO MARKETING NO ADVERTISING CAMPAIGNS - DISTRIBUTED AS A SERVICE TO CLIENTS"

ডেস্ক: সুদূর কেরালা ছাড়িয়ে নিপা আতঙ্ক এবার হানা দিল কলকাতাতে। শহরের বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক রোগী নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত বলে অনুমান করছেন চিকিৎসকরা। সেই আশঙ্কাকে ঘিরেই শুরু হয়েছে চাঞ্চল্য। জারি করা হয়েছে সতর্কতা।

কেরলের পরতে পরতে এখন নিপার বিভীষিকা, দক্ষিণী মারন এই ভাইরাসের আক্রমণ প্রাণ কেড়েছে ১২ জনের, আক্রান্তের সংখ্যাও বহু। কেরলের ছায়া যাতে বাংলায় না পড়ে তার জন্য আগেভাগে সতর্ক হয়ে এদিনই বারুইপুরের এক লিচুবাগানে অভিযান চালান চিকিৎসক ও পর্যবেক্ষকরা। সেখানে বাদুড়ের বিষ্ঠা ও পড়ে থাকা ফল নিয়ে পরীক্ষা চালানো হয় দেখা হয় নিপা ভাইরাসের বাহক বাদুড় এ রাজ্যেও হানা দিয়েছে কিনা? তবে এতকিছুর পরেও ওই রুগীকে আতঙ্ক তৈরি হল শহরে।

উল্লেখ্য, নিপা ভাইরাস কারও শরীরে আক্রমণ করলে রোগীর শরীরে দেখা দেয় এনসেফালাইটিসের লক্ষ্মণ প্রবল জ্বরের সঙ্গে থাকে মাথা ধরা, বমিবমি ভাব ও ঝিমুনি। ২৪ থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কোমায় চলে যেতে পারে রোগী। বাতাসে এই ভাইরাস না ছড়ালেও রোগীর সংস্পর্শে এলে অন্য কেউও আক্রান্ত হতে পারেন নিপায়। প্রসঙ্গত, এর আগে ২০০১ সালে শিলিগুড়িতে নিপার ছোবলে প্রাণ হারান ৪৫ জন। ২০০৭ সালে নদিয়ায় এই ভাইরাসের আক্রমণে প্রাণ হারিয়েছিলেন পাঁচজন। কেরালার থেকে শিক্ষা নিয়ে এ রাজ্য সতর্কত হলেও শহরে ঘিরে ধরল নিপা আতঙ্ক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here