ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনের মুখেই লন্ডনের মাটিতে গ্রেফতার হয়েছেন পিএনবি ঋণ খেলাপির দায়ে অভিযুক্ত নীরব মোদী। নির্বাচনের ঠিক আগে নীরবের গ্রেফতারি নিয়ে এবার শুরু হল রাজনৈতিক জল্পনা। তাঁর গ্রেফতারির খবর ভারতের চাউর হতেই, কংগ্রেসের তরফে মোদী সরকারের বিরুদ্ধে তোলা হল বিস্ফোরক অভিযোগ। দাবি করা হল, মোদী সরকার ভোটে জিততেই গ্রেফতার হল নীরব।

এদিন নীরব মোদীর গ্রেফতারির পরই কংগ্রেস নেতা গুলাম নবি আজাদ জানান, ‘ঋণ খেলাপিতে অভিযুক্ত নীরবকে গ্রেফতারি থেকে বাঁচাতে মোদী সরকারই ভারতের বাইরে বের করে দিয়েছিল জালিয়াতকে। আর এখন তাঁকে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে, শুধুমাত্র নির্বাচনে জেতার জন্য।’ নীরবের গ্রেফতারির পর কংগ্রেসের তরফে দেওয়া এহেন বয়ানে ব্যাপক চাঞ্চল্য শুরু হয়েছে। তবে শুধুমাত্র আজাদ নন, নীরবের গ্রেফতারির পরই টুইট করেছেন জম্মু কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ। এদিন টুইটার হ্যান্ডেলে আবদুল্লাহ লেখেন, ‘দেখতে অবাক লাগছে নীরব মোদীর গ্রেফতারির পুরো কৃতিত্ব দেওয়া হচ্ছে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে। অথচ নীরবকে লন্ডনের রাস্তায় প্রথম খুঁজে বের করেছিল লন্ডন টেলিগ্রাফের সাংবাদিক। প্রধানমন্ত্রী মোদী নন বা তাঁর গোয়েন্দা সংস্থাও নয়।

উল্লেখ্য, সাড়ে ১৩ হাজার কোটি টাকা ঋণ খেলাপির অভিযোগে বহুদিন ধরেই দেশছাড়া হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী। দেশ ছাড়ার পর দীর্ঘ ১৭ মাস ধরে আত্মগোপন করেছিলেন নীরব। ভারতের মাটিতে তাঁর বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ দায়ের করে ইডি ও সিবিআই। জারি করা হয় রেড কর্ণার নোটিশও। এরইমাঝে লন্ডনের রাস্তায় দেখা যায় নীরবকে তাঁকে ধাওয়া করে লন্ডন টেলিগ্রাফের এক সাংবাদিক। এরপরই তৎপর হয় সিবিআই ও ইডি। ইডির অনুরোধে লন্ডনের মাটিতে গ্রেফতার করা হয় জালিয়াত হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদীকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here