nirav modi bengali news

ডেস্ক: প্রচুর কাঠখড় পোড়ানোর পর লন্ডনের মাটিতে গ্রেফতার হয়েছেন পিএনবি কাণ্ডের মূল কাণ্ডারি নীরব মোদী। শুক্রবার লন্ডনের আদালতে তাঁর জামিন মামলার শুনানিতে বড় সাফল্যের পেল ভারত। আদালতে মিলল না নীরবের জামিন। জালিয়াত নীরবের জামিন যাতে না মেলে তাঁর জন্য পিএনবি কাণ্ডের অন্যতম কাণ্ডারি নীরব মোদীর বিরুদ্ধে একাধিক তথ্য প্রমাণ পেশ করেছিল ভারত ও লন্ডন পুলিশ। নীরবের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রমাণ পেশ করে জানানো হয় গ্রেফাতারি এড়ানোর জন্য সাক্ষীকে খুনের হুমকি থেকে ঘুস সবই দেওয়ার চেষ্টা করেছেন নীরব। ফলে জামিন পেলে তিনি ফের পালানোর চেষ্টা করবেন। পুলিশের এহেন দাবিতেই দ্বিতীয় বারের জন্য নাচক হয়ে যায় নীরবের জামিনের আর্জি।

এদিন লন্ডন আদালতে ভারতের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ‘পলাতক এই হিরে ব্যবসায়ীকে জামিন দেওয়া অত্যন্ত বপদজনক। ও যদি জামিন পায় তবে ফের পালানোর চেষ্টা করবে। সাক্ষিদের প্রভাবিত করবেন, তথ্যপ্রমাণ নষ্ট করবেন। প্রমাণ হিসাবে ভারতের তরফে জানানো হয়, একটা সময়ে পিএনবি জালিয়াতি সংক্রান্ত নথিপত্র নীরবের নির্দেশে নষ্ট করে ফেলা হয়েছিল। জামিনের বিরোধিতা করতে নীরবের বিরুদ্ধে বহু তথ্যপ্রমাণ আদালতে জমা দেয় সিবিআই এবং ইডি। এই তথ্য প্রমাণ দাখিলের পর নীরবের জামিনে না করে দেয় আদালত।

তবে নীরবের পক্ষ থেকে আদালতে সাওয়াল করে জানানো হয়, জামিন পেলেও নীরবের পালানোর সম্ভাবনা কম। কেননা তিনি লন্ডনে নিজের নামে ফ্ল্যাট কিনেছেন। শহরে একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টও খোলার চেষ্টা করছেন। তবে সে চেষ্টায় লাভ অবশ্য কিছু হয়নি। প্রসঙ্গত গত বুধবারই নীরবের জামিনের আবেদন বাতিল করে দেন ডিস্ট্রিক্ট জাজ মেরি ম্যালোন।

উল্লেখ্য, ভারতের পিএনবি ব্যাঙ্ক থেকে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা জালিয়াতি করে দেশছাড়া হন হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদী। গোটা ঘটনার তদন্তে নামে সিবিআই ও ইডি। তবে নীরব কোথায় আছেন সি বিষয়ে কোনও হদিশ মেলেনি। সম্প্রতি, এক সাংবাদিকের সৌজন্যে প্রকাশ হয় নীরবের ভিডিও দেখা যায় ৯ লাখি স্যুট পরে দিব্যি লন্ডনের রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন নীরব। এরপরই তৎপর হয় ভারত। ভারতের চেষ্টায় লন্ডনের মাটিতে গ্রফতার হন নীরব। এদিকে ভারতের তদন্তকারী সংস্থার তরফে জানা যাচ্ছে, তাঁরা চান যতদিন না পর্যন্ত নীরবকে ভারতে ফেরানো সম্ভব হচ্ছে, ততদিন লন্ডনের জেলেই বন্দি থাকুক নীরব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here