ডেস্ক: দ্বিতীয় বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত্ব ব্যাঙ্কের আর্থিক তছরুপের কাণ্ডে অভিযুক্ত নীরব মোদী এবার নিরাপদ আশ্রয় খুঁজতে চলেছেন লণ্ডনে। এমনটাই জানা গেছে সাম্প্রতিক প্রকাশিত একটি রিপোর্টে। বিখ্যাত হীরে ব্যাবসায়ী নীরব মোদী ও তারই পরিবারের আর এক সদস্য মেহুল চোক্সির বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করেছিল ইডি ও সিবিআই। তার পর থেকেই দেশ ছেড়ে বেপাত্তা দু’জনেই। এদের বিরুদ্ধে পিএনবি ব্যাঙ্কের ১৩ হাজার কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ ছিল। যা ২ বিলিয়ন ইউএস ডলার বা ১৩ হাজার কোটি টাকারও বেশী। ব্যাংকের মধ্যেকার কিছু কর্মীও এই ব্যাপক অংকের টাকার জালিয়াতির সঙ্গে অভিযুক্ত ছিল বলে জানা যায়। এর আগে এত বিশাল অংকের টাকার আর্থিক দুর্নীতি হয়েছে বলে জানা নেই।

লণ্ডনে নীরব মোদীর কোম্পানির একটি শাখা আছে। এই সূত্র ধরেই তিনি লণ্ডনে নিরাপদ ঘাঁটি গাড়তে চাইছেন বলে দাবী করেছে সর্ব ভারতীয় একটি অর্থনৈতিক সংবাদ সংস্থা। মুম্বই আদালতের আগেই নয়া দিল্লিতে এদের বিরুদ্ধে সিবিআই কেস চার্জশিট পেশ করেছিল। প্রিভেনশন অফ মানি লণ্ডারিং অ্যাক্ট অধীনে বিভন্ন ধারায় নীরব মোদীর বিরুদ্ধে আর্থিক জালিয়াতির কারণে বিশেষ আদালতে ১২ হাজার পাতার একটি চার্জশিট তৈরি করা হয়েছে। এইরূপ আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে অভিযুক্ত ধনকুবের বিজয় মালিয়া ও ললিত মোদীকে ভারতে হস্তান্তর করার জন্য বারবার বলা হলেও কোনও কাজ হয়নি। এনডিএ সরকারের আমলে এরকম আর্থিক জালিয়াতি হওয়ায় বিরোধী দলগুলো কেন্দ্র সরকারকে বিঁধতে পিছুপা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here