আর্থিক পরিস্থিতি শুধরে নেওয়ার চেষ্টা চলছে, মন্দার বাজারে ‘ব্যাখ্যা’ সীতারমণের

0
521
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নির্মলা সীতারমণ অর্থমন্ত্রকের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে দেশের অর্থনীতির সময় খুব একটাও ভালো যাচ্ছে না। একাধিক বিতর্কের ঝড় ঝাপটা এসেছে। জিডিপি নেমেছে। অটোমোবাইল সেক্টর বিগত কয়েক দশকে সবচেয়ে খারাপ সময় দেখেছে। তবে এত কিছু সত্ত্বেও সীতারমণ বলে এসেছেন, সব ঠিক আছে। বুধবারই দেশজুড়ে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সাংবাদিক বৈঠকের মাধ্যমে এই ঘোষণা করতে শোনা যায় কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীকে। যা নিয়ে শ্লেষের সুরে টুইটারে কটাক্ষ করেছিলেন দেশের অন্যতম উদ্যোগপতি কিরণ মজুমদার শ। এরপর সীতারমণও পাল্টা জবাব দিয়েছেন। কিন্তু সেখানেও যেন ব্যর্থতা লুকিয়ে রাখতে পারেননি তিনি। নিজেই লিখেছেন, আমি কাজ (চেষ্টা) কিন্তু করে যাচ্ছি।

ই-সিগারেট ব্যান করার মতো সিদ্ধান্ত কি আদৌ অর্থমন্ত্রীর ঘোষণা করার কথা? টুইটারে এহেন প্রশ্নই ছুড়ে দিয়েছিলেন উদ্যোগপতি কিরণ মজুমদার। তিনি লিখেছিলেন, ‘ই-সিগারেট ব্যান করা হয়েছে, বললেন করলেন অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। এটা কি স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ঘোষণা করা উচিত ছিল না? গুটখাও ব্যান করলে কেমন হয়? অর্থনীতিকে পুনরুদ্ধার করতে করতে অর্থমন্ত্রক যদি কোনও প্যাকেজ ঘোষণা করে কেমন হয়?’

উদ্যোগপতি কিরণের এই টুইটের পর নিজেকে শান্ত রাখতে পারেননি নির্মলা। উত্তরে তিনি লেখেন, ‘কিরণজি, আমি কেবল সাংবাদিক বৈঠক করেছিলাম মন্ত্রিসভার সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করতেই।’ এরপর কীভাবে এবং কেন তিনি সাংবাদিক বৈঠক করেছিলেন, এছাড়াও বিভিন্ন সময়ে অন্যান্য মন্ত্রীদের ভূমিকা সম্পর্কেও লেখেন। এই পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। এরপরই আর্থিক পরিস্থিতির প্রসঙ্গ টানেন অর্থমন্ত্রী। শেষ টুইটে লেখেন, ‘আপনি হয়তো দেখে থাকবেন অর্থমন্ত্রী হিসেবে আমি বিষয়টা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। পাশাপাশি আলোচনাও চালাচ্ছি কীভাবে, কী ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব।’

বস্তুত নিজের শেষ টুইটের মাধ্যমেই যেন বিপন্নতা কিছুটা হলেও প্রকাশ করে ফেলেছেন নির্মলা। তিনি চেষ্টা এবং কাজ চালিয়ে গেলেও অর্থনীতির আচ্ছে দিন কবে ফিরবে, তা নিয়ে ধন্দ থেকেই যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here