national news

Highlights

  • রাষ্ট্রপতি থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক একে একে সব দরজা বন্ধ
  •  তিহাড় জেলের অন্দরে মৃত্যুর প্রহর গুনছে মুকেশ সিং, বিনয় শর্মা, পবন কুমার ও অক্ষয় ঠাকুররা
  • সংশোধনাগরের শৌচালয়ে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই খুনি

মহানগর ওয়েবডেস্ক: রাষ্ট্রপতি থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক একে একে সব দরজা বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর ফাঁসি একেবারেই নিশ্চিত নির্ভয়া কাণ্ডের ৪ ধর্ষকের। তিহাড় জেলের অন্দরে মৃত্যুর প্রহর গুনছে মুকেশ সিং, বিনয় শর্মা, পবন কুমার ও অক্ষয় ঠাকুররা। যদিও আইনের ফাঁস থেকে মুক্তি পেতে চেষ্টার কোনও ত্রুটি রাখেনি ধর্ষকরা। সবদিক থেকে হতাশ হয়েই শেষ মুহূর্তে এসে আত্মহত্যার চেষ্টা করল নির্ভয়া খুনি বিনয় শর্মা। সূত্রের খবর, সম্প্রতি সংশোধনাগরের শৌচালয়ে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে ওই খুনি। যদিও পুলিশি তৎপরতায় তাকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

ফাঁসির দিনক্ষণ একরকম নিশ্চিত হয়ে যাওয়ার পর বর্তমানে সিসিটিভি নজরদারিতে রয়েছে নির্ভয়ার ওই চার ধর্ষক ও খুনি। তিহাড়ের চার নম্বর সেলের একটি রুমে রয়েছে বিনয় শর্মা। অর পাশেই রয়েছে একটি শৌচালয়। সেখানেই বুধবার সকাল ৯ টা থেকে ১০ টা নাগাদ শৌচালয়ে এক লোহার টুকরোয় দড়ি বেঁধে তাতে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে বিনয় শর্মা। তবে যেভাবে ওই ফাঁস তৈরি করা হয় তার উচ্চতা থেকে ৫ থেকে ৬ ফুটের মধ্যে হওয়ায় বিফল হয় চেষ্টা। বিষয়টি নজরে পড়ে কর্তব্যরত নিরাপত্তারক্ষীর। তৎক্ষণাৎ উদ্ধার করা হয় বিনয়কে।

তবে এই ঘটনাকে একটি চাল বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ ফাঁসি হওয়ার আগে দোষীর স্বাস্থের দিকে বাড়তি নজর দেয় কর্তৃপক্ষ। কোনও কারণে যদি দোষীর শরীর অসুস্থ হয় তবে তাকে ফাঁসি দেওয়া যায় না। ঠিক এই পন্থাকেই কাজে লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিল বিনয়। যাতে জেলের খাতায় তার আত্মহত্যার বিষয়টি নথিভুক্ত হয়। যদিও বিনয়ের এই কাণ্ড এই প্রথমবার নয়, এর আগেও ২০১৬ সালে জেলের মধ্যেই একবার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিল এই বিনয় শর্মা। সেবার জেলের লোহার গ্রিলে কাপড় বেঁধে ঝুলে পড়ার চেষ্টা করে সে। ঘটনার জেরে হাসপাতালেও ভর্তি হতে হয় তাকে। এবার সেই পথেই হাঁটার চেষ্টা করল নির্ভয়ার খুনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here