ডেস্ক: সংখ্যাতত্ত্বটা বেশ ভালোই বোঝেন বিজেপি নেতারা। পুলওয়ামায় ৪০ সেনা জওয়ান শহীদ হওয়ার পর যে বিজেপি গোটা দেশ তোলপাড় করে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধের জিগির জাগিয়ে তুলেছিল। ছাইচাপা দেশপ্রেম ও জাতীয়তাবাদের আগুন এক লহমায় তৈরি হয়েছিল বিধ্বংসী দাবানলে। আজ তা কিছুটা ফিকে হয়ে এলেও ধিকি ধিকি জ্বলছে বেশ। তবে আগে যে ভোট এবং তারপর দেশপ্রেম তা এদিন বেশ ভালো করে বুঝিয়ে দিলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার সহ বিহার এনডিএর দাপুটে নেতারা। এক জওয়ানের মৃত্যু বোধহয় অতটা গুরুত্বপূর্ণ নয় এই অনুমানেই বোধ হয় বিহারের মাটিতে আসা উপত্যকায় শহীদ জওয়ানের মরদেহকে গুরুত্ব না দিয়ে বিহারে মোদীর র‍্যালিতে ছুটলেন এনডিএর নীতীশ কুমার সহ ছোট, বড়, মাঝারি সমস্ত নেতারা।

 

শুক্রবার জম্মু কাশ্মীরের কূপওয়াড়ায় জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে শহীদ হন বিহারের সিআরপিএফ ইন্সপেক্টর পিন্টু কুমার সিং। রবিবার তাঁর মরদেহ এসে পৌঁছয় বিহারের জয়প্রকাশ নারায়ন বিমানবন্দরে। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয়, রাজ্যের মাটিতে শহীদের মরদেহ এসে পৌঁছনোর পর সেখানে দেখা যায়নি বিহারের শাসকদল বিজেপি বা জেডিইউর কোনও ছোট বড় বা মাঝারি নেতাকে। যা নিয়ে রীতিমতো ক্ষোভ উগরে দিয়েছে ওই শহীদের পরিবার। তবে শহীদকে স্যালুট জানাতে বিমানবন্দরে উপস্থিত না হওয়ার পিছনে যে কারন উঠে এসেছে তা হল ভোট। রবিবার বিহারের পাটনায় সভা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর। মোদীর সেই সংকল্প মিছিলেই মন পড়েছে শাসকদলের সমস্ত নেতা নেত্রীদের। মোদীর আতিথেয়তা করতে এতটাই ব্যস্ত তারা যে খুব বিশেষ নজর দেওয়ার সময় পাননি শহীদের দিকে। আর এখান থেকেই বিরোধীরা নতুন করে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে সেনা মৃত্যুর পর যে দরদ মোদী তথা বিজেপি নেতাদের মন ভরিয়ে তুলেছিল তা কি শুধুই ভোটবাজি?

এই প্রসঙ্গে শহীদ পিন্টু কুমারের দাদা সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, ‘এটা খুবই দুর্ভাগ্যজনক, মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারও এলেন না আমার ভাইকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে।’ শহীদকে শ্রদ্ধা জানাতে সেখানে উপস্থিত হয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন বিহার কংগ্রেস প্রধান মদন মোহন ঝাঁ সহ অন্যান্য নেতৃত্বরা। ছিলেন জেলাশাসক কুমার রবি, সিআরপিএফ এবং রাজ্য পুলিশের শীর্ষকর্তারা। তবে এই প্রসঙ্গে এনডিএর তরফে বিরোধীদের অভিযোগের সাফাই গেয়ে জানানো হয়েছে, ‘ওঁদের সভা থাকলে ওরাও হয়ত আসতেন না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here