ডেস্ক: ৩ রাজ্যে জঘন্য ভরাডুবির পর হারের জন্য মোদী-শাহর দিকেই আঙুল তুলেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা নীতীন গড়করী। তবে ২০১৯ লোকসভার লক্ষ্যে মোদীকেই সেরার আসনে বসিয়ে দলীয় কর্মীদের কানে মন্ত্র দিয়ে দিলেন বিজেপির এবারের অন্যতম হাইভোল্টেজ নেতা।

শনিবার একদিকে যখন সমস্ত বিরোধীদের একত্রিত করে কলকাতায় মোদী হঠাও শ্লোগান তুলছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ঠিক তখনই অন্যদিকে, পাল্টা উন্নয়নকে হাতিয়ার করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে মোদীর বিকল্প নেই বলে জানিয়ে দিলেন আরএসএস ঘনিষ্ঠ বিজেপি নেতা গড়করী। নাগপুরে বিজেপির তফসিলি জাতি মোর্চার জাতীয় সম্মেলন মঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ‘সবাই শপথ নিন নিজেদের সমস্ত শক্তি দিয়ে আগামী নির্বাচনে বিজেপি সরকারকে পূর্ণ শক্তি দিয়ে ক্ষমতায় ফেরাব।’ একইসঙ্গে মোদীকে কেন দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় ফেরানো উচিৎ সে প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি আরও জানান, ‘দেশের পিছিয়ে পড়া মানুষকে তুলে আনতে হবে সামনের সারিতে। ভারতকে আরও উন্নত ও শক্তিশালী করে তুলতে হবে, তার জন্যই দেশের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে প্রয়োজন নরেন্দ্র মোদীকে।’

গড়করীর এহেন উল্টো সুরে নতুন করে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে কারণ, কিছুদিন আগেও গড়করীর মুখে শোনা যাচ্ছিল ভিন্ন সুর। ৩ রাজ্যে বিধানসভায় ভরাডুবির পর কখনও তিনি বলেছেন, জয়ের কৃতিত্ব যেমন শীর্ষ নেতারা নেন , তেমনই হারের দায়ও তাঁদেরই। কখনও নিজ মুখে তিনি স্বীকার করেছেন নেতৃত্ব দিতে কম যান না তিনিও। বিজেপির আগামী প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে তাঁর নামও শোনা যাচ্ছিল গেরুয়া শিবিরের গুঞ্জনে। তবে মুখে তিনি একথা স্বীকার না করলেও ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দিয়েছেন তাঁর ইচ্ছা। তবে হঠাৎ এই উল্টো সুর কেন তাঁর মুখে শোনা গেল তার কোনও ব্যাখ্যা নেই রাজনৈতিক মহলে।

শনিবারের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে মোদীকে ফের তুলে ধরার পাশাপাশি বিরোধী মহাজোটকে তোপ দাগতে ছাড়েননি গড়করী। তার কথায়, ‘ভালো কাজ যে করে তার শত্রু সংখ্যা বাড়ে। যাদের মনে ভয় ও রাজনৈতিক জমি হারিয়ে ফেলেছে তারাই সব একত্রে হাত মিলিয়েছে। এই প্রসঙ্গে বিএসপি এসপিকেও তোপ দাগতে ছাড়েননি। বিজেপি যদি শক্তিশালী না হয় তবে কেন ভাইপো পিসির কাছে যাচ্ছে। একইসঙ্গে বিজেপি সম্পর্কে তিনি বলেন বিজেপি কোনও মা-ছেলের দল নয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here