yedurappa kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্টের রায়ে কিছুটা হলেও স্বস্তি পেলেন কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদিউরাপ্পা৷ তিনি আরও কিছুদিন নিশ্চিত গদিতে থাকতে পারবেন৷ এর আগে ছল চাতুরী করে বিহারের মতো কর্ণাটকে পেছনের দরজা দিয়ে ঢুকে রাজ্য ক্ষমতা দখল করেছিল বিজেপি৷ মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন ইয়েদিউরাপ্পা৷ আগামি ২১ অক্টোবর কর্ণাটকের ১৫টি আসনে উপনির্বাচন হওয়ার কথা ছিল৷ তবে বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্ট থেকে এই বোটের ওপর স্থগিতাদেশ জারি করা হয়েছে৷ এই মামলার পরবতী শুনানি হবে ২২ অক্টোবর৷

কর্ণাটক বিধানসভার স্পিকার কে আর রমেশ কুমার এর আগে রাজ্যের ১৭ জন বিধায়কের সদস্যপদ বাতিল করেছেন। যার মধ্যে ১৪ জন কংগ্রেসের বিধায়ক এবং বাকি ৩ জন রয়েছেন জনতা দলের (সেকুলার)। সদস্য পদ বাতিলের বিরোধিতা করে শীর্ষ ন্যায়ালয়ের দ্বারস্থ হন ওই বিধায়করা। বিরোধীদের দায়ের করা হলফনামার পরিপ্রেক্ষিতেই বিচারপতি এন ভি রমনের নেতৃত্বাধীন তিন বিচারপতির ডিভিশন উপনির্বাচন স্থগিত রাখার রায় দেয়। এরপরই কর্ণাটকের উপনির্বাচন নিয়ে নোটিস জারি করে নির্বাচন কমিশন জানিয়ে দেয়, আপাতত ২১ অক্টোবর কর্ণাটকে কোনও নির্বাচন হচ্ছে না।

বাতিল হওয়া বিধায়করা কর্ণাটকের প্রাক্তন স্পিকার রমেশকুমারের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতের দ্বারস্ত হয়েছিলেন৷ সিনিয়র আইনজীবী রাকেশ দ্বিবেদীর বয়ানও নথিভুক্ত করে আদালত। কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়া বলেন, উপনির্বাচন বিলম্বিত হলে তাঁদের কোনও অসুবিধা নেই। এই মামলায় পরবর্তী শুনানি হব ২২ অক্টোবর।বর্তমানে ২২৫ আসন বিশিষ্ট কর্ণাটক বিধানসভায় ১০৫ সদস্য নিয়ে সরকার গঠন করেছে বিজেপি। মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন বিএস ইয়েদুরাপ্পা। অন্যদিকে বিরোধীদের মধ্যে ৬৫টি আসন রয়েছে কংগ্রেসের। এদের মধ্যে ১৪ জন কংগ্রেস বিধায়কের সদস্যপদ বাতিল করেছেন স্পিকার। বাকি ৩৪ জন জনতা দলের (সেকুলার) বিধায়ক। কুমারস্বামীর দল জেডিএসের ৩ জন বিধায়কের সদস্যপদও বাতিল করেছেন স্পিকার কে আর রমেশ কুমার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here