kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: আগামী এপ্রিল মাস থেকে দেশজুড়ে শুরু হচ্ছে এনপিআর। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে এই ঘোষণার পর জল্পনা চড়েছিল এনআরসির প্রথম পদক্ষেপ এই এনপিআর। শুধু তাই নয়, এনপিআরে দেশবাসীর কাগজ দেখতে চাওয়া হতে পারে বলেও চড়েছিল জল্পনা। আর যদি সেই কাগজ কোনও নাগরিক দেখাতে না পারেন সেক্ষেত্রে তাঁকে ডি ভোটার বা সন্দেহভাজন নাগরিক বলে চিহ্নিত করা হবে। এইসব জল্পনার মাঝেই এদিন সবটা স্পষ্ট করে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

বৃহস্পতিবার লোকসভা অধিবেশনে এনপিআর নিয়ে প্রশ্ন ওঠার পর বক্তব্য রাখতে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, ‘এনপিআর প্রক্রিয়ায় কোনও নথি লাগবে না। যদি আপনার কাছে কোনও নথি না থাকে, তাহলে তা জমা দিতে হবে না।’ পাশাপাশি তিনি আরও জানান, ‘কেউকেই সন্দেহভাজন নাগরিক হিসাবে চিহ্নিত করা হবে না। ফলে দেশবাসীর উদ্বিগ্ন হওয়ার বা ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই।’ নাগরিকত্ব ইস্যুতে দেশজুড়ে উত্তেজক পরিস্থিতির মাঝে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এহেন ঘোষণা যে দেশবাসীর জন্য স্বস্তির হাওয়া বয়ে নিয়ে আসবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে এইটুকুতেই খান্ত থাকেননি অমিত শাহ। তিনি আরও জানান, ‘এনপিআরের যে ফর্ম ফিলআপ করা হবে সেখানে কোনও ব্যক্তির কোনও তথ্য না থাকলে, তিনি সেই জায়গা ফাঁকাও রেখে দিতে পারেন। কোনও বাধ্যবাধকতা নেই।’

প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় সরকারের সাম্প্রতিক এনপিআরে বাবা মায়ের জন্ম তারিখের পাশাপাশি জন্মসংক্রান্ত তথ্য দিতে হবে এমন একটা জল্পনা ছড়িয়েছিল গোটা দেশে। শুধু তাই নয় যদি কেউ কেউ তথ্য দিতে না পারেন সেক্ষেত্রে তাঁদের ডি ভোটার বা সন্দেহভাজন ভোটার হিসাবে চিহ্নিত করা হবে। গোটা বিষয় নিয়ে সোচ্চার হয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ একাধিক বিরোধী নেতা নেত্রীরা। এহেন পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার লোকসভায় দাঁড়িয়ে সে জল্পনা দূর করলেন খোদ অমিত শাহ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here