মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিজেপির সঙ্গে জোট ভেঙে শিবসেনা বেরিয়ে এসেছে, তারা নতুন সরকার গড়েছে। হল অনেকদিন। তারপরও শনিবার এক হোটেলে সাক্ষাৎ করে শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত ও মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশ। সেই সাক্ষাতের পর নতুন করে রাজনৈতিক জল্পনা শুরু হয়েছে। তবে কি ফের শিবসেনা এনডিএ-র দিকে ঝুঁকছে? এমন ফিসফাস শুরু হতেই তাতে জল ঢাললেন বিরোধী দলনেতা। ফড়নবীশ জানিয়ে দিয়েছেন, কোনও রাজনৈতিক কারণে তারা সাক্ষাৎ করেননি।

রবিবার দেবেন্দ্র ফড়নবীশ জানিয়েছেন, শিবসেনা মুখপত্র ‘সামনা’য় একটি সাক্ষাৎকারের জন্য সঞ্জয় রাউত তাঁর সঙ্গে দেখা করেছিলেন। শর্তসাপেক্ষে সেই সাক্ষাৎকার দিতে রাজিও হয়েছিলেন দেবেন্দ্র ফড়নবীশ। এদিন তিনি জানিয়েছেন, ‘শিবসেনা মুখপত্র সামনার জন্য সঞ্জয় রাউতজি আমার সাক্ষাৎকার নিতে চেয়েছিলেন। আমি কিছু শর্ত দিয়েছিলাম, সেগুলো মেনেই বৈঠকটা হয়েছিল। আমি চেয়েছিলাম আমার সাক্ষাৎকারে যেন কোনও কলম না চালানো হয়। তবে এই বৈঠকে কোনও রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি।’

এই সাক্ষাতের পিছনে কোনও রাজনৈতিক অভিসন্ধি নেই বলে জানিয়েছেন মহারাষ্ট্র বিজেপির প্রধান মুখপাত্র কেশব উপাধ্যায়ও। তাঁর কথায়, ‘সঞ্জয় রাউত চেয়েছিলেন সামনার জন্য ফড়নবীশের সাক্ষাৎকার নিতে। কীভাবে সেই সাক্ষাৎকার নেওয়া হবে সেটা আলোচনা করতেই দুই নেতা দেখা করেছিলেন।’ ফড়নবীশ জানিয়েছেন, বিহার নির্বাচনের প্রচার শেষে তিনি সামনার জন্য সাক্ষাৎকার দেবেন সঞ্জয় রাউতকে।

অন্যদিকে এই প্রসঙ্গে প্রশ্ন করা হলে সঞ্জয় রাউত বলেন, ‘ফড়নবীশ যিনি রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন এবং এখন বিরোধী দলনেতা, তাঁর সঙ্গে দেখা করা কি কোনও অপরাধ? যখন আমি শরদ পাওয়ারের সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন তখনই আমি ফড়নবীশ, রাহুল গান্ধী এবং অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাৎকার নেওয়ার পরিকল্পনা করে রেখেছি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here