kolkata news
Highlights

  • সাধারণ পরিবারের এক ব্যক্তির মাথায় কার্যতই আকাশ ভেঙে পড়েছে, সৌজন্যে বিদ্যুৎ দফতরের পাঠানো বিল
  • ৪ লক্ষ ১৩ হাজার ৭০০ টাকা ৮৯ টাকা বাকি রয়েছে বলে পাঠানো বিলে জানিয়েছে বিদ্যুৎ দফতর
  • বিলটি দেখার পর এক প্রকার তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন


নিজস্ব প্রতিনিধি, উত্তর দিনাজপুর:
সাধারণ মধ্যবিত্ত ঘরে মাসে যতটা বিদ্যুৎ খরচ হয় তাতে খুব বেশি বিল আশার কথা নয়। শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত যন্ত্র ব্যবহার না করলে বিল নিয়ে খুব একটা মাথা ঘমানোর দরকার নেই। কিন্তু, এমন এক পরিবারের এক ব্যক্তির মাথায় কার্যতই আকাশ ভেঙে পড়েছে। সৌজন্যে বিদ্যুৎ দফতরের পাঠানো বিল। ৪ লক্ষ ১৩ হাজার ৭০০ টাকা ৮৯ টাকা বাকি রয়েছে বলে পাঠানো বিলে জানিয়েছে বিদ্যুৎ দফতর।

বিদ্যুৎ দফতরের পাঠানো এই ভুতুড়ে বিলের কারণে মাথায় হাত উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জের পুরসভার ১৩ নং ওয়ার্ডের হাসপাতালপাড়ার বাসিন্দা সঞ্জিত কৈরীর। গত শনিবার পোস্টের মাধ্যমে তার কাছে বিদ্যুৎ দফতরের চিঠি আসে। চিঠি খুলে দেখতেই মাথায় হাত সঞ্জিত কৈরীর। কারণ, বকেয়া বিল হিসাবে তার কাছে বিদ্যুৎ দফতরের নোটিস আসে তার ৪ লক্ষ ১৩ হাজার ৭০০ টাকা ৮৯ টাকা বাকি রয়েছে বলে। সোমবার বিদ্যুৎ দফতরের সেই নোটিশ নিয়ে কালিয়াগঞ্জের বিদ্যুৎ দফতরে জানান এবং লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি জানতে চান, কীভাবে তার এত টাকা বিল এল? সঞ্জিতবাবু জানান, তিনি একজন প্রেশারের রোগী। বিলটি দেখার পর এক প্রকার তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার কোনও বিল বাকি না থাকলেও এত টাকার বিল কীভাবে এল তা ভেবে মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে।

বিদ্যুৎ দফতরের সঙ্গে কথা বলার পর তিনি জানতে পারেন, বিলটি ভুল করে তার কাছে পাঠানো হয়েছে। তার কোনও বিল বাকি নেই। এদিকে স্টেশন ম্যানেজার সুদীপ কুমার জানান, ভুলবসত এই বিল গেছে তার কাছে। অভিযোগ পাওয়ার পর দেখা যায়, ওই ব্যক্তির কোনও বিল বাকি নেই। এই ধরনের ভুল হয়ে থাকলে বিদ্যুৎ দফতরে এসে অভিযোগ দায়ের করা হলেই সমস্যার সমাধান হয়ে যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here