ডেস্ক: অনেক আগে থেকেই একটা অশান্তির বাতাবরণ তৈরি হয়েছিল৷ সম্প্রতি তা চরম আকার ধারণ করেছিল৷ তাই অশান্তি আটকাতে অবিলম্বে সরিয়ে দেওয়া হল উত্তর দমদম পুরসভার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানকে৷ তৃণমূল সূত্রে দাবি, দলের শৃঙ্খলারক্ষার স্বার্থেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হল৷ মঙ্গলবার একটি বৈঠকেরে মাধ্যমে সরিয়ে দেওয়া হল পুরসভার চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানকে৷ পরির্বতে নতুন দুই কাউন্সিলরকে নিয়ে আসা হল দায়িত্বে৷ এই বৈটকে পুরসভার ২৫ জন কাউন্সিলরের মতামত নিয়েই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর চব্বিশ পরগণা জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক।

এখন থেকে নতুন চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব সামলাবেন সুবোধ চক্রবর্তী এবং ভাইস চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকবেন লোপামুদ্রা দত্ত চৌধুরি। এদিন খাদ্য ভবনে বৈঠক শেষে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘ভাইস চেয়ারম্যানকে মারধর করেছিল কনট্রাক্টর। ওই ঘটনায় চেয়ারম্যানের আরও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত ছিল। আগামিদিনে যেন এমন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে, সেদিকে সকলের নজর দেওয়া উচিত৷’

খাদ্যভবনে গুরুত্বর্পূণ এই বৈঠকে উত্তর চব্বিশ পরগণা জেলাসভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, উত্তর দমদম পুরসভার ২৫জন কাউন্সিলর ছাড়াও হাজির ছিলেন দমদমের সাংসদ সৌগত রায়, জেলা তৃণমূল কংগ্রেস র্পযবেক্ষক তথা বিধানসভার মুখ্য সচেতক নির্মল ঘোষ ও মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। একজন কাউন্সির শুধু শারীরিক অসুস্থতার জন্য উপস্থিত থাকতে পারেননি৷

এদিন বৈঠক শেষে নির্মল ঘোষ জানান, অভিযুক্ত কনট্রাক্টরকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করা হয়েছে। পাশপাশি, ব্ল্যাকলিস্টও করা হয়েছে তার সংস্থাকে। এই সিদ্ধান্তকে দলীয় সিদ্ধান্ত বলেন জানিয়েছেন সাংসদ সৌগত রায়। বিষয়টি নিয়ে বিদায়ী চেয়ারম্যান কল্যান কর বিশেষ মন্তব্য করতে চাননি৷ তিনি জানিয়েছেন, দল যেটা ভাল মনে করেছে সেটাই করেছে। দলের সিদ্ধান্তই তিনি মাথা পেতে গ্রহণ করেছেন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here