মহানগর ওয়েবডেস্ক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ রবিবার ‘ডেস্টিনেশন নর্থ ইস্ট ২০২০’ অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করলেন। এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধনে উত্তর-পূর্ব ভারতের ভুয়ষী প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে উঠলেন দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। জানালেন উত্তর-পূর্ব ভারত ছাড়া ভারত এবং ভারতীয় সংস্কৃতি সম্পূর্ণ হয় না। উত্তর-পূর্ব সংস্কৃতি ভারতীয় সংস্কৃতির অলংকার। তবে উন্নয়ন সহ নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত এই উত্তরপূর্ব ভারতে সমস্ত সমস্যা ২০২৪ সালের মধ্যে শেষ হয়ে যাবে বলে আশ্বাস দিলেন অমিত শাহ। একইসঙ্গে উত্তর-পূর্বের উগ্রপন্থী সংগঠন গুলিকে সামাল দিতে সরকারের প্রচেষ্টার প্রশংসা করেন তিনি জানিয়ে দেন মোদি সরকারের আমলে এখানকার ৮টি উগ্রবাদী সংগঠনের প্রায় ৬৪৪ জন ক্যাডার আত্মসমর্পণ করেছেন।

পর্যটন দিবস উপলক্ষে রবিবার ‘ডেস্টিনেশন নর্থ ইস্ট ২০২০’ অনুষ্ঠানে অমিত শাহ বলেন, ‘অর্থনীতি পর্যটন ও রোজগারের দিকে লক্ষ্য স্থির করতে গেলে উত্তর-পূর্বে শান্তি নিশ্চিত করাটা একান্ত গুরুত্বপূর্ণ। কত ৬.৫ বছর ধরে উত্তর-পূর্ব ভারত উগ্রবাদ, হিংসা, ভারত বনধ সহ নানাবিধ কারণে সংবাদ শিরোনামে ছিল। তবে বর্তমানে ভারতের উত্তর-পূর্ব অঞ্চল উন্নয়ন, শিল্প, জৈব চাষাবাদ এবং স্টার্টআপের জন্য আলোচিত হয়।’ তিনি আরও বলেন, ‘সমস্যার সমাধান তখনই সম্ভব হয় যখন কেউ উত্তর-পূর্বের আসল সমস্যাগুলোকে বোঝে এবং সততার সঙ্গে তা সমাধানের চেষ্টা করে। নেতৃত্বে এখানে শান্তি বজায় থাকবে প্রচুর কর্মযজ্ঞ হয়েছে। এবং দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে আমি সমস্ত মুখ্যমন্ত্রী এবং উত্তর-পূর্বের মানুষকে জানাতে চাই ২০২৪ সালের আগে উত্তর-পূর্ব ভারতের সমস্ত মুখ্য সমস্যাগুলোর সমাধান করা হবে।

এছাড়াও এদিনের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূয়শী প্রশংসা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদীর শাসনকালে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলির ৮ টি উগ্রবাদী সংগঠনের প্রায় ৬৪৪ জন ক্যাডার আত্মসমর্পণ করেছেন। শাহর কথায়, ‘একাধিক এমন বিষয় রয়েছে যা দীর্ঘ সময় ধরে চলে আসছে যেমন ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত চুক্তি, মনিপুরের অচলাবস্থা সমাপ্ত করা, ব্লু-রিং চুক্তি, বিডি চুক্তি, এবং আটটি উগ্রবাদী সংগঠনের প্রায় ৬৪৪ জন ক্যাডারের আত্মসমর্পণ সবটাই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমলের সম্ভব হয়েছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here