kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: অস্বস্তিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে ওঠা ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ সত্য। জানিয়ে দিয়েছে জুডিশিয়াল কমিটি। এরপর ইম্পিচমেন্ট প্রস্তাব নিয়ে হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভে ভোটাভুটি হবে। তার আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিক্রিয়া, আমার সঙ্গে এটা ঠিক হল না৷ আমি কোনও ভুল করিনি৷ আমার আমলে দেশ উন্নতি করেছে৷

গদি টলমল মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। তাঁর বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের দু’টি অভিযোগ উঠেছিল। দীর্ঘ প্রকাশ্য শুনানির পরে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সত্য বলে ঘোষণা করেছে হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভের তদন্ত কমিটি। এর পরবর্তী পদক্ষেপ হিসেবে ট্রাম্পকে অপসারণ প্রস্তাবের ওপরে ভোট দেবেন হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভের সদস্যরা। যদিও নিজের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন ট্রাম্প। শুক্রবার হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভের তদন্ত কমিটির বৈঠকে ক্ষমতার অপব্যবহারের দু’টি অভিযোগে ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। প্রেসিডেন্টকে ইমপিচ করার পক্ষে ২৩টি ভোট পড়ে। আর বিপক্ষে ভোট দেন ১৭ জন। কঠোর পার্টি লাইন অনুসারে এদিন তদন্ত কমিটির রিপাবলিক্যান এবং ডেমেক্র্যাট সদস্যরা তাঁদের ভোট দেন।

মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ অর্থাৎ হাউস অফ রিপ্রেজেন্টেটিভে বর্তমানে ট্রাম্পের বিরোধীরা সংখ্যাগুরু। ফলে অধিকাংশ অধিকাংশ ইমপিচমেন্ট প্রস্তাবের পক্ষে ভোট দিলে পরের পর্যায়ে তদন্ত অনুষ্ঠিত হবে সেনেটে। প্রেসিডেন্টকে পদ থেকে অপসারণের জন্য দুই-তৃতীয়াংশ সেনেটরের সম্মতি প্রয়োজন। ২০২০ সালে আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তখন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে প্রার্থী হতে পারেন ডেমোক্র্যাট পার্টির জো বিডেন। তিনি বারাক ওবামার আমলে আট বছর আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে ছিলেন। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ঠিক কী কী অভিযোগ রয়েছে? ট্রাম্প নাকি ইউক্রেনকে ৪০ কোটি ডলারের সামরিক সাহায্য বন্ধ করে দিয়েছিলেন। পরে তিনি সে দেশের প্রেসিডেন্টকে ফোন করে বলেন, ২টি শর্তে ফের সাহায্য চালু করতে পারেন। প্রথমটি হল জো বিডেন ও তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়ে যেতে হবে। দ্বিতীয়টি হল প্রচার করতে হবে রাশিয়া নয়, ইউক্রেন ২০১৬ সালে আমেরিকায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সময় ট্রাম্পকে সাহায্য করতে চেয়েছিল। সে কথা প্রকাশ হওয়ার পরই স্পিকার ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ইম্পিচমেন্ট প্রক্রিয়া চালু করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here