yogi
যোগী আদিত্যনাথ
yogi
যোগী আদিত্যনাথ

মহানগর ডেস্ক: ‘জয় শ্রীরাম’ প্রসঙ্গ নিয়ে এবার মুখ খুললেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। ভগবান রামের নাম যে কেউ নিতে পারেন তাতে কাউকে জোর করার প্রশ্ন ওঠে না বলেও জানান তিনি। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা দেখা সাক্ষাত হলে নমস্কার কিংবা জয় শ্রী রাম বলে থাকি। এটাই আমাদের রীতি। এতে খারাপ লাগার কিছুই নেই।’

প্রসঙ্গত, গতকালই নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকীর দিন এই ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি শুনেই ক্ষুব্ধ হয়ে পড়েন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নিজের ক্ষোভ জানিয়ে কোনও বক্তব্য না রেখেই অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে নেমে আসেন।

যখন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সভায় বক্তব্য রাখতে আসেন ঠিক তখনই কার্যত তাঁকে উদ্দেশ করেই ভেসে আসে ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি। এরপরেই আর নিজের ক্ষোভ সামলাতে পারেননি মমতা। সামনে বসে থাকা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে লক্ষ্য করেই তিনি ‘রাজনীতি’ করার কথা বলে গর্জে ওঠেন।

এই ‘জয় শ্রী রাম’ ধ্বনি নিয়ে এর আগেও বহু বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। ভগবান রামের নাম কেন শুধুমাত্র একটি রাজনৈতিক দলের ‘কুক্ষিগত’ থাকবে প্রশ্ন উঠেছে তা নিয়েও। কিংবা এই ধ্বনি কাউকে অপমানিত করতে কিংবা রণহুংকার স্বরূপ কেন ব্যবহার করা হবে তা নিয়েও উঠেছে প্রশ্ন।

কিন্তু, সোমবার এই বিষয়টি কার্যত উড়িয়ে দিলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। যোগী বলেন, ‘কাউকে আঘাত করবার উদ্দেশে এই ধ্বনি ব্যবহার করা হয় না। মানুষ যদি ভগবান রামের নাম নেয় এতে খারাপ লাগার বা আঘাত লাগার কী আছে?”

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে এটা নেহাতই বিজেপির ‘ড্যামেজ কন্ট্রোলের’ চেষ্টা মাত্র। কারণ ভগবানের নাম নেওয়ার ক্ষেত্রেও স্থান-কাল-পাত্র দেখার প্রয়োজন হয়। সেখানে দাঁড়িয়ে নেতাজির ১২৫তম জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এই ধরনের ধ্বনি দূষিত রাজনীতির বার্তাবাহক বলেই মনে করছেন তাঁরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here