FotoJet-107

ডেস্ক: শুধু নীরব মোদী বা বিজয় মালিয়া নন। সাম্প্রতিক সময়ে আর্থিক তছরুপ করে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন আরও ৩৬ শিল্পপতি! অগস্তা ওয়েস্টল্যান্ড চপার কেলেঙ্কারির অন্যতম অভিযুক্ত সুশেন মোহন গুপ্তর জামিনের বিরোধিতা করে আদালতে এদিন এমনটাই জানিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। সোমবার চপার কেলেঙ্কারির এক মামলার শুনানিতে সুপ্রিম কোর্টর সামনে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য পেশ করল ইডি। ফলে, ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত সুশেন মোহনকেও যদি জামিন দেওয়া হয়, তবে তিনিও দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে পারেন।

সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরবিন্দ কুমারের এজলাসে এদিন সুশেন মোহন গুপ্তর জামিনের মামলাটি ওঠে। সেখানে ইডির আইনজীবী জানান, বিগত কয়েক বছরে বিজয় মালিয়া, নীরব মোদী ও মেহুল চোকসির মতো একাধিক শিল্পপতি দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। অন্যদিকে অগস্টা ওয়েস্টল্যান্ড কপ্টার কেলেঙ্কারির ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত সুশেন। বাকিদের মতো তাঁর নামেও ফৌজদারি মামলা চলছিল। পালিয়ে যাওয়ার সময় তারাও যথেষ্ট প্রভাবশালী ছিলেন। তা সত্ত্বেও বিদেশে পালিয়ে যেতে সক্ষম হন তারা। এই কারণ দেখিয়েই এদিন সুশেন মোহনের জামিন রুখে দেয় ইডি।

দুবাই থেকে প্রত্যার্পিত রাজীব সাক্সেনা’র গ্রেফতার ও তার স্বীকারোক্তির পরই চপার কেলেঙ্কারিতে সুশেন মোহন গুপ্তার ভূমিকার কথা প্রথম সামনে আসে বলে ইডি সূত্রে জানানো হয়। একই সঙ্গে জানা যায়, সুশেন মোহনের ডায়রিতে ‘আর জি’ নামের কোনও ব্যক্তির উল্লেখ রয়েছে। কে সেই রহস্যময় ‘আর জি’ তা জানতে আপাতত তদন্ত চলছে বলছে জানা গিয়েছে। তবে সুশেন মোহনের আইনজীবীর দাবি, তদন্ত শেষ করেছে ইডি। চার্জশিটও পেশ করেছে। ফলে ইডি যে সুশেনের পালিয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে তা ভিত্তিহীন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here