kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি, ভাঙড়: এলাকার উন্নয়ন কিংবা অভাব, অভিযোগ নয়, শুধু নাগরিকপঞ্জি নিয়ে সঠিক তথ্য জানার জন্য ‘দিদিকে বলো” কর্মসূচিতে ভিড় বাড়ালেন সাধারণ মানুষ। রবিবার বিকালে ভাঙড়ের মধ্য বড়ালিতে তৃণমূল নেতা কাইজার আহমেদের ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচিতে সংখ্যালঘু মানুষের ভিড় বাড়ল শুধুমাত্র এনআরসি নিয়ে আতঙ্ক দূর করার জন্য। এদিনের সভায় প্রচুর মহিলার উপস্থিতি চোখে পড়ে। বিকেলের ভাত ঘুম লাঠে তুলে ওই মহিলাদের একটাই প্রশ্ন, বাচ্ছা-কাচ্ছা নিয়ে ভিটেবাড়িতে থাকতে পারব কিনা! উদ্বিগ্ন, চিন্তিত মুখের সারিকে আশ্বস্ত করেন কাইজার। তিনি বলেন, ‘যতক্ষণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেঁচে আছেন, ততক্ষণ কাউকে দেশ ছাড়া হতে হবে না। আমরাও প্রাণ থাকতে দিদির সৈনিক হিসাবে লড়াই করে যাব। আমি আপনাদের পাশে আছি, এলাকার উন্নয়ন করব, বুক দিয়ে আগলাব।’

রবিবার ভাঙড়ের মধ্য বড়ালিতে ‘দিদিকে বলো’ জনসংযোগ কর্মসূচিতে গিয়ে এলাকার সাধারণ তৃণমূল কর্মী-সহ মানুষের কাছে অভাব অভিযোগের কথা শুনতে চান ভাঙড় ১-এর নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি কাইজার আহমেদ। এদিনের এই কর্মসূচিতে উপস্থিত জনতা এলাকায় উন্নয়ন হচ্ছে বলে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কাইজার আহমেদকে ধন্যবাদ জানান।

বিকালেই কর্মসূচি থাকলেও রাতে বুথ সভাপতি মুজিত আলি টালির বাড়িতে রাত কাটান কাইজার। এদিন কাইজার রাত পর্যন্ত গ্রামবাসীর অভাব-অভিযোগ শোনার পাশাপাশি এনআরসি নিয়ে গ্রামবাসীদের আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য আবেদন করেন। তিনি আশ্বস্ত করে বলেন, ‘দিদি আমাদের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বাংলায় কখনও এনআরসি করতে দেবেন না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here