এনআরসি হলে পাওয়া যাবে না জমানো টাকা, আতঙ্কে মৃত্যু অবসরপ্রাপ্ত চা শ্রমিকের

0
kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি, আলিপুরদুয়ার: ফের এনআরসি আতঙ্কে মৃত্যুর অভিযোগ উঠল আলিপুরদুয়ারে। এবার এনআরসি আতঙ্কে অবসরপ্রাপ্ত এক চা শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ। সোমবার বিকেলে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে ওই অবসরপ্রাপ্ত ওই চা শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

জানা গিয়েছে, মৃত চা শ্রমিকের নাম নিকোলাস ওঁরাও। বয়স আনুমানিক ৭০ বছরের ঊর্ধ্বে। অবসরপ্রাপ্ত চা শ্রমিক নিকোলাস কালচিনির বিচ চা বাগানের নয় নম্বর লাইনের বাসিন্দা। গত ২৮ নভেম্বর বাড়িতেই অসুস্থ হন নিকোলাস। ওই দিনই কালচিনির লতাবাড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। পরে পরিস্থিতির অবনতি হলে দুই দিন পর তাকে আলিপুরদুয়ার জেলার হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। অবশেষে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে সোমবার সন্ধ্যায় নিকোলাসের মৃত্যু হয়।

এই ঘটনায় ফের রাজনৈতিক মহলে সোরগোল পড়ে যায়। নিকোলাসের মেয়ে জেরুসালেম এক্কা বলেন, ‘বাইরে থেকে কে যেন বলে দিয়েছে যে এনআরসি হলে জমানো প্রভিডেন্ট ফান্ড, ভাতা সহ অন্যান্য টাকা পাবেন না বাবা। এর পরই আতঙ্কিত হয়ে ২৮ নভেম্বর বিকেলে বাড়িতে পুরনো কাগজপত্র খুজতে শুরু করেন। সেই সময় আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়লে বাবাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু আর বাঁচানো গেল না। সোমবার বিকেল মারা গেলেন।’

বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছে আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূল কংগ্রেস। আলিপুরদুয়ার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা সঞ্জিত ধর বলেন, ‘বাংলায় এই মৃত্যু অত্যন্ত দুঃখজনক। আমাদের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে দিয়েছেন এই রাজ্যে আমরা এনআরসি চালু করতে দেব না। তবুও মানুষকে আতঙ্কমুক্ত করা যাচ্ছে না। দেশ থেকে মোদি সরকারকে না সরাতে পারলে এই আতঙ্ক যাবে না। আমরা মানুষের পাশে আছি। সকলকে আবেদন করছি আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য। আমরা এই রাজ্যে এনআরসি চালু করতে দেব না।’

আলিপুরদুয়ার জেলা বিজেপির সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা বলেন, ‘তৃণমূল কংগ্রেস উল্টোপাল্টা বলছে। চা বাগানের মানুষরা দেড়শো থেকে দুইশো বছর ধরে এই সব এলাকায় রয়েছেন। তৃণমূল কংগ্রেস মিথ্যাচারের শেষ সীমা অতিক্রম করেছে। এই সব অভিযোগের আমার জবাব দিতে ইচ্ছে করে না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here