kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ২০০৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত রাষ্ট্রপুঞ্জের হিসেবে শতাংশের হিসেবে ছিল ২১.৭। প্রায় এক দশক পর ২০১৭-১৯ পর্যন্ত সেটাই কমে গিয়ে এখন মাত্র ১৪ শতাংশ। চরম সংকট থেকে ধীরে হলেও সাফল্যের মুখ দেখেছে দেশ, আর সেই সাফল্যের কথাই এদিন তুলে ধরল রাষ্ট্রপুঞ্জ। তাদের প্রকাশিত রিপোর্টে জানানো হয়েছে, ভারতে অনাহার ও অপুষ্টির যাতাকল ভেঙে বেরিয়ে এসেছেন ৬ কোটি মানুষ। নিশ্চিতভাবেই দেশের জন্য একটি বড় সাফল্য।

সম্প্রতি রাষ্ট্রপুঞ্জের খাদ্য ও কৃষি সংগঠন, আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিল, ইউনিসেফ এবং হু-এর তরফে যে তথ্য প্রকাশে আনা হয়েছে সেখানে দাবি করা হয়েছে, এক দশকে ভারতে অপুষ্টির সংখ্যাটা ২১.৭ শতাংশ থেকে কমে গিয়ে বর্তমানে ১৪ শতাংশ। অনাহার ও অপুষ্টিতে ভুগতে থাকা ভারতের সংখ্যা এখন কমে গিয়েছে ৬ কোটি। তবে অপুষ্টির পরিসংখ্যানে ভারতের অবস্থা ভালোর দিকে হলেও বিশ্বের ছবিটা মোটেও ভালো নয়। তথ্য বলছে ২০১৯ সালে বিশ্বে অনাহার অপুষ্টিতে ভোগা মানুষের সংখ্যা ৬৯ কোটি। কথাত ২০১৮ সালের তুলনায় যা ১ কোটি বেড়ে গিয়েছে। তবে ভারতে অপুষ্টির হার কম এটা একদিকে যেমন ভালো তেমনি উদ্বেগজনক একটি দিকও উঠে এসেছে এই রিপোর্টে। বলা হয়েছে গত এক বছরে ভারতে সুষম বৃদ্ধির হার কমেছে শিশুদের। বয়স্কদের মধ্যে বেড়েছে মোটা হওয়ার হার। রক্তাল্পতার হার বাড়ায় মহিলাদের মধ্যে গড় মাতৃত্বের বয়স কমেছে।

রাষ্ট্রপুঞ্জের ওই রিপোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, ভারতের পাশাপাশি চীনেও একই ভাবে কমেছে অপুষ্টির হার। সেই তথ্যকে হাতিয়ার করে বিশেষজ্ঞদের দাবি, রাষ্ট্রপুঞ্জের দাবিমতো গোটা বিষয়টি থেকে এটা স্পষ্ট ভাবে বলা যায় গত এক দশকে চীন ভারত এশিয়া এই দুই দেশের অর্থনীতির ব্যাপক বৃদ্ধি হয়েছে। বৈষম্য কমেছে এবং অত্যাবশ্যকীয় সুযোগ সুবিধাগুলি মানুষ পাচ্ছেন। যা নিশ্চিত ভাবে অত্যন্ত ভালো একটি দিক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here