মহানগর ওয়েবডেস্ক: কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর রিপোর্টেই বেআব্রু কেন্দ্রের ব্যর্থতা! নরেন্দ্র মোদীর সরকার প্রথম থেকেই রেলের উন্নয়নে বিশেষ জোর দিয়েছে। রেলের উন্নয়নের পাশাপাশি যাত্রী সুরক্ষা ও নিরাপত্তার জন্য প্রতি বছরই বিপুল টাকা বরাদ্দ করছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও রেল দুর্ঘটনা কম হওয়া দূর অস্ত, উল্টে বেড়েই চলেছে। বিশেষত গত তিন বছরে রেল দুর্ঘটনা বৃদ্ধির হাত অন্তত তিনগুণ বেড়েছে। এটি কোনও বিরোধী দল বা বেসরকারি সংস্থার রিপোর্ট নয়, রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েলই সংসদে এই রিপোর্ট পেশ করেছেন। যা নিয়ে রেলের যাত্রী সুরক্ষায় কেন্দ্রের সাফল্য নিয়ে নতুন করে প্রশ্ন উঠছে।

জানা গিয়েছে, গত শুক্রবার লোকসভায় রেল দুর্ঘটনা নিয়ে একটি রিপোর্ট পেশ করেন রেলমন্ত্রী পীযুষ গোয়েল। সেই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ২০১৫-১৬ সালে দেশে রেল দুর্ঘটনার সংখ্যা ছিল মাত্র ২০টি। পরের বছর অর্থাৎ ২০১৬-১৭ সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৩৪। তার পর থেকে এখনও পর্যন্ত রেল দুর্ঘটনার মোট সংখ্যা ৫৯। যা গত তিন বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি। ২০১৫-১৬ এবং ২০১৬-১৭ অর্থবর্ষে সুরেশ প্রভু রেলমন্ত্রী থাকলেও ২০১৭ সাল থেকেই রেল মন্ত্রকের দায়িত্বে রয়েছেন পীযূষ গোয়েল। ফলে গত তিন বছরে রেল দুর্ঘটনার দায় তাঁর উপরই বর্তায়। পীযূষ গোয়েল অবশ্য সেই দায় অস্বীকার করেননি। তবে ৫৯টি দুর্ঘটনার মধ্যে ১৭টি ক্ষেত্রেই রেলের পরিকাঠামোকে দায়ী করেছেন তিনি। একইসঙ্গে আগামীদিনে ট্রেন দুর্ঘটনা ঠেকাতে রেলের পরিকাঠামো উন্নয়নে জোর দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছেন গোয়েল।

প্রসঙ্গত, রেলকে ঢেলে সাজাতে নরেন্দ্র মোদী সরকারের পরিকল্পনার অন্ত নেই। প্রতি বছরই রেল বাজেটে পরিকাঠামো উন্নয়ন, নিরাপত্তার জন্য বিপুল অঙ্কের অর্থ বরাদ্দ হয়। সম্প্রতি বিভিন্ন টার্মিনাল স্টেশনগুলিতে ওয়াইফাই, চলন্ত সিঁড়ি, বয়স্ক ও বিশেষভাবে সক্ষম যাত্রীদের জন্য আলাদা করে বসার জায়গা, শৌচাগারের ব্যবস্থা হয়েছে। রক্ষীবিহীন লেবেল ক্রসিংয়ের সংখ্যাও অনেকটা কমিয়ে আনা হয়েছে। অনেক নতুন রেকও আনা হয়েছে। এই সবই যাত্রী সুরক্ষা ও রেলের নিরাপত্তার স্বার্থে করা হয়েছে বলে কেন্দ্রের দাবি। কিন্তু এত কিছু করেও আখেরে কোনও সুরাহা না হওয়ায় সাধারণ মানুষের মধ্যেও ক্ষোভ রয়েছে। তবে এবার পীযূষ গোয়েল যেভাবে তাঁর জমানায় রেল দুর্ঘটনা বেড়ে চলার রিপোর্ট পেশ করে দায় স্বীকার করলেন, তা নজিরবিহীন। এবার তিনি রেল দুর্ঘটনা ঠেকাতে কী পদক্ষেপ করেন এবং কতটা সুরাহা হয়, সেটাই দেখার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here