kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, ভাঙড়: করোনা ভাইরাস প্রতিহত করতে মৃত্যু ভয়কে উপেক্ষা করে কখনও অ্যাপ্রন পরে ফ্রন্ট লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে লড়াই করেছেন। থানায় লঙ্গরখানা খুলে পরিযায়ী শ্রমিকদের মুখে অন্ন তুলে দিয়েছিলেন। শেষে নিজেই করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয় হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়েছেন। পাহাড় সমান সাহস বুকে অসীম প্রত্যয় নিয়ে করোনাকে জয় করে ঘরে ফিরলেন কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স থানার ওসি স্বরূপকান্তি পাহাড়ি।

ভাঙড়ের কলকাতা লেদার কমপ্লেক্স থানায় করোনা ভাইরাস হানা দিতেই আক্রান্ত হন কয়েকজন পুলিশ কর্মী। খোদ থানার ওসি স্বরূপবাবু নিজেই আক্রান্ত হন। বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে কয়েক দিন চিকিৎসাধীন ছিলেন। করোনা জয় করে চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা নিয়ে ঘরে ফিরেছেন তিনি। মারণ ভাইরাসের মোকাবিলা করে আবারও তিনি করোনা যোদ্ধা হিসাবে ডিউটিতে যোগ দিতে চলেছেন বলে জানা গিয়েছে।

মারণ ভাইরাসের আতঙ্ক কাঁটা গোটা বিশ্ব। তার ওপরে লকডাউনে চরম দুর্দশায় সাধারণ মানুষ। এমতাবস্থায় মানুষকে করোনা ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষা করতে সর্বদা কর্তব্যে অবিচল ছিলেন। নিজের জীবনের থেকে ডিউটিকে সর্বদাই প্রাধান্য দিয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, চিত্তরঞ্জন কোভিড হাসপাতালে তিনি ফ্রন্ট লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে মাথায় টুপি, গায়ে পুলিশের সাদা পোশাকের ওপর নীল অ্যাপ্রন, হাতে গ্লাভস ও মুখে মাস্ক পরে একেবারে চিকিৎসকের পোশাকে ডিউটি করেছেন। পাশাপাশি সচেতনতার বার্তা দিয়েছিলেন সাধারণ মানুষকে। এতদিন তিনি ছিলেন একজন করোনাযোদ্ধা। আজ তিনি একজন করোনাজয়ী। তাঁর সাহস, ভয়কে জয় করার ক্ষমতা বর্তমান পরিস্থিতিতে সমাজের সকল শ্রেণির মানুষকে মনোবল বাড়াতে সাহায্য করবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here